একজন আইএস এর করুণ কাহিনী

490
SHARE

মা  মা গো মা …

তোমায় বলে বোঝাতে পারবো না কি এক দারুণ যাতনার মাঝ দিয়ে পার করছি এ জীবন ।

তুমি যে আমায় এক গৃহ শিক্ষক দিয়েছিলে যাতে আমি পরীক্ষ।য় ভালো করি … তোমার ইচ্ছাটা আমার মঙ্গলের জন্য , আমার ভালোর জন্য ছিল ।

কিন্তু তুমি তো জান না ওই ইবলিশ আমাকে পড়ার ফাঁকে ফাঁকে ইসলামের বীরত্বের কথা বলত , হজরত আলীর শক্তির কথা বলত , আর আমি মোসলমান বলে আমার খুব ভালো লাগতো । মাঝে মাঝে আমি পড়া বাদ দিয়ে ওই সব ইসলামের ইতিহাস শুনতাম ।

খালেদ বিন অলিদ , ইবনে সিনা তাঁদের কথা শুনতাম আর নিজেকে তাঁদের কাতারে চিন্তা করতাম ।

মা এ যে কি নেশা তুমি বুঝবে না ।

এক সময় আমার খেলাধুলা সব ছেড়ে খালি মনে হত এ জীবনে মহান আল্লাহতালার পথে কিছু করে যাই । কেমন এক নেশায় পেয়ে বসলো । আর আমার ওই গৃহ শিক্ষক আমাকে যার পরনায়  উৎসাহ দিতো । এক দিন তোমায় ছেড়ে , সামিয়া কে ছড়ে , সব খেলাধুলা   ছেড়ে , আমার প্রিয় মাতৃ ভূমি ছেড়ে ( এখন বুঝি বাংলাদেশ আমার কত প্রিয় ) ওই ব্যাটার , যাকে দেবতার মত বিশ্বাস করতাম , তার সাথে প্লেনে চড়লাম । জীবনে প্রথম প্লেনে চড়ছি শয়ে যে কি আনন্দ তোমায় বলতে পারবোনা ।

মা মা গো …।। এখন সারা রাত শুধু কাঁদি আর কাঁদি । আমায় ইচ্ছা মত বেরোতে দেয় না , কোন ফোন করতে দেয় না , কোন কিছু বললে কি এক ড্রিংক দেয় , আমি সব ভুলে যাই । আমার ওই গৃহ শিক্ষক আমায় রেখে আবার ঢাকা গেছে কোন নতুন ছেলে ধরে আনতে ।

মা জানো আমি তো বাঙালি আমার অনেক প্রশ্ন জাগে মনে । আমি নাকি মরলে বেহেস্ত যাব । সে  দিন জানতে চাইলাম যে  ইসলামে তো খুন করা বারন , তা হলে আমি বোমা মেরে মানুষ মারলে যে গুনাহ হবে তাহলে সে গুনাহগার কি করে বেহেস্ত যাবে?

বলে কি জানো , ধর্মে যুদ্ধে কোন পাপ নাই , খালি মানুষ খুন কর । আমি বললাম ঠিক আছে , তাহলে ইসলাম তো বলে , নারী ,শিশু , বড়ো মানে বুড় দের খুন না করতে । বলে এ কথা কোথায় পেয়েছ ? বললাম , আবু বকর ( রা ঃ ) কিতাব আল জাহিদ , বই এ।

পড়েছি । বলে কি জানো , নেতার আদেশ পালন করবে শালা বাঙ্গেলি বেশি কথা বলবি তো জানে মেরে ফেলব । আর থেকে থেকে কি সব খাই , সব ভুলে শুধু মনে হয় বিয়ে করি । আর কোথা থেকে কোন সব মেয়ে এসে এই সব আই এস দের  খাতির যত্ন করে ।

আর এক দিন আর এক বড়ো নেতাকে বললাম , লা কুম দীন ও কুম .. অয়ালিয়া দীন … ইসলাম তো অন্যের উপর ধর্ম চাপিয়ে দিতে বারন করেছে … ওই লোকটা আমার দিকে এমন এক চাহনি দিল যে আমি চুপসে গেলাম । মা মনে পড়ে তুমি অম্বর চাচার ঘরে যখন পার্টী চলছিল তখন চাচার মেয়ে কে গুলশানে তার রুমে ঘরের চাকর রেপ করে খুন করলো, পার্টীর কারনে চাচারা টের পেল না । তখন তুমি বলে ছিলে এক ছাদের নিচে মেয়ে খুন হচ্ছে আর বাবা বাজনার তালে নাচছে । এখন আমার মনে হয় কেন তুমি আমাকে আরও ভালবাসলে না , তা হলে আমি এই নরকের পথে পা বাড়াতাম না ।

মা মাগো , এরা কেমন এক রুমের মাঝে দশ জন কে শুতে দেয় , জামা কাপড় ধুতে পারি না। স্বাধীনতা বলতে কিচ্ছু নেই …

এক পরম যাতনায় দিন যাচ্ছে ।

এই জীবন থেকে মুক্তি পেতে আর কোন রাস্তা নেই কেবল আত্মহত্যা ছাড়া । তাই আমার অনেক বন্ধু তাড়াতাড়ি বাঁচার জন্য সুসাইড স্কোয়াডে যোগ দিয়ে বেঁচে যায় ।

এখানে একবার এলে মরণ ছাড়া গতি নেই । মা যদি পার তাহলে আমার বাঙালি ভ। ইদের বোল , কেও যাতে এই ভয়ঙ্কর মৃত্যু পথে পা না বাড়ায় । সারা পৃথিবীতে সরিয়া আইন কায়েম করবে , পাগল ছাড়া এ কথা কে ভাবে বোল।

মা মাগো , জীবনের কোন কিছু না বুঝে কি এক দোজখের পথে পা বাড়িয়েছি । জানি না কোন দিন তোমার কাছে আমার এই চুরি করে লেখা ইমেইল পৌঁছাবে কিনা?

মা মা মাগো , তুমি তো জানো , আজ জখন এই মেইল লিখছি তখন আর মাত্র এক দিন পরে আমার বয়স হবে মাত্র ২০ বছর ।

মা বলত এই ২০ বছরে আমি জীবনের কি বুঝি যে আমাকে দিয়ে শরিয়া আইন প্রতিশঠা করবে। তোমরা সবাই ভাবো কেন ২০ বা ২২ বছরের ছেলেদের এরা বেছে নেয় । কারণ কোন নাদান বেকুব ছাড়া কেউ এ পথে আসবেনা ।

মা মা এই মাত্র ২০ বছর বয়সে আমায় তোমায় ছেড়ে , শামীয়া  ছেড়ে , পৃথিবী ছেড়ে চলে জেতে হচ্ছে । এ আমার পাপের সাজা।

হয়তো কোন দিন কোন কাগজে, কোন টীভীতে , তোমার ভালোবাসার ধনের মরা মুখ দেখবে।

তুমি ভাববে তোমার ছেলে মরে গেছে , সারা পৃথিবী ভাববে তোমার ছেলে মরে গেছে , পুলিশ ভাববে আমি মরে গেছি, আসলে কি জানো মা , আমি জানবো , আমার মতো শত আই এস ভাই জানবে যে আমি আসলে বেঁচে গেছি আই এস এর হাত থেকে। আই এস এর হাত থেকে বেচে গেছি।       

আইএস এর সদস্য হওয়া মানেই পাপীর মরণ ছাড়া আর বেরোবার কোন পথ নেই। HELL IS CONFIRMED. NO EXIT

মনে রাখবেন – আইসিসকে আমরা দ্যা চিকেন স্টেট হিসেবে ঘোষণা দিয়েছি। আর এ নিয়ে আমাদের কিছু নতুন ভিডিও আসছে এই সপ্তাহে। যদি দেখতে চান আগে ভাগ্যে, তাহলে আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি এই লিঙ্কে গিয়ে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন। ঠিকানা – YouTube.com/bangladeshism.

আপনার মন্তব্য

2 COMMENTS

  1. Yes,we will win insha’Allah. Bangladesh will fight back against those extremists. We will root out the terrorists insha’Allah. May Allah accept your good work my friend – ‘Bangladeshism’.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here