৯.০ মাত্রার ভূমিকম্পের জন্য আপনি প্রস্তুত তো?

প্রাকৃতিক দুর্যোগ গুলর মধ্যে অন্যতম একটি ভূমিকম্প ! অথচ আমরা কম মানুষই জানি এর সম্পর্কে এবং এই প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে করণীয় কি তা নিয়ে আমাদের বিন্দুমাত্র ধারনা নেই।

যেহেতু ভূমিকম্প একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ সেহেতু  আমাদের পক্ষে এর প্রতিরোধ করা সম্ভব নয়। কিন্তু , আমরা চাইলে আমাদের জীবন রক্ষার জন্য কিছু পদক্ষেপ নিতে পারি।

এই পদক্ষেপ গুল তিনটি ধাপে বিভক্ত

১।  ভূমিকম্প পূর্ববর্তী পদক্ষেপ

২।  ভূমিকম্প চলাকালীন সময় করনীয় পদক্ষেপ

৩। ভূমিকম্প পরবর্তী পদক্ষেপ

ভূমিকম্প পূর্ববর্তী পদক্ষেপ

আমার যদি একটু চিন্তা করি , তবে আমরা দেখতে পাই আমাদের প্রত্যেকেই দৈনন্দিক কাজের জন্য কোথাও না কোথাও অবস্থান করে থাকি। যেমন- অফিস, শপিং মল , রেস্টুডেন্ট,  স্কুল- কলেজ কিংবা বাসায়। সুতরাং এগুলোই আমাদের ভূমিকম্প চলাকালীন অবস্থান গুলর একটি হতে পারে এবং আমাদের এই নিয়মিত অবস্থানরত স্থান গুলর উপর  ভিত্তি করেই ভূমিকম্প পূর্ববর্তী পদক্ষেপ  গ্রহণ করতে হবে। আসুন কিছু গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়ে কথা বলি।

১। আপনি যে স্থানে নিয়মিত যাতায়ত করেন সেই স্থান গুলর অবকাঠামোগত  দিক গুল নিয়ে ভাবুন। সেই স্থান গুল চিহ্নিত  করুন যেগুলো আপনাকে আপদ কালীন সময়ে সুরক্ষা দিবে।

২। নিয়মিত  ভূমিকম্প চলাকালীন সময় করনীয় ড্রিল গুল চর্চা করুন এবং আপনার পরিবার ও প্রতিবেশীদের ও উসাহিত করুন । মনে রাখবেন – “Drop, Cover, and Hold On!” এই তিনটি শব্দই হয়ত আপনার জীবন বাঁচাতে পারে। কারণ আপনি কয়েক সেকেন্ডই সময় পাবেন সুরক্ষিত স্থানে পৌছতে।

৩। সেই সকল আসবাবপত্র আপনার মনে চিন্নহিত করে রাখুন যা ভূমিকম্পের সময় আপনার ক্ষতি সাধন করতে পারে। যেমন – জালনার কাঁচ, ফুল দানি, বুক শেলফ, আয়না, টেবিল লাইট ইত্যাদি হাল্কা আসবাবপত্র।

৪। আপদ কালীন সময়ের জন্য টিনজাত খাবার, একটি আপ টু ডেট ফার্স্ট এইড কিট, ধুলো মাস্ক এবং গগলস, প্রতি জনের জন্য গ্যালন (11.4 লিটার) পানি , এবং একটি ব্যাটারী চালিত রেডিও এবং টর্চলাইট সংরক্ষণ করে  রাখুন।    

৫। আপনার পরিবারের সকল সদস্য কে নিয়ে আপদ কালীন সময়ের জন্য পরিকল্পনা করুন , কিভাবে আপনারা একে অপরের সাথে যোগাযোগ রাখবেন।

৬। আপনি যখন আপনার বাড়ি বা ব্যবসার স্থান নির্ধারণ করবেন , আগে চেক করে নিন ভবনটি স্থানীয় বিল্ডিং কোড অনুযায়ী তৈরি নাকি এবং এটি ভূমিকম্প সহনশীল কিনা।

ভূমিকম্প চলাকালীন সময় করনীয় পদক্ষেপ

সত্যি কথা বলতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ চলাকালীন সময় কোনকিছু সঠিক ভাবে চিন্তা করা খুবই দুষ্কর। কিন্তু যদি আপনি এর সম্পর্কে সচেতন হন এবং  প্রাকৃতিক দুর্যোগ চলাকালীন সময়ে করণীয় পদক্ষেপ সম্পর্কে আপনার ধারনা থাকে তবে আপনি নিজের সহ আরও অনেকের জীবন রক্ষা করতে পারেন। আসুন জেনে নেই ভূমিকম্প চলাকালীন সময় করনীয় পদক্ষেপ গুল কি কি ?

যদি আপনি একটি বিল্ডিং এর ভিতরে অবস্থান করেন

১। সেখানেই অবস্থান করুন আপনি যেখানে রয়েছেন। বাইরে যাওয়ার জন্য দৌড়াদৌড়ি করবেন নাহ।  সে সকল জায়গা বর্জন করুন যা নিরাপদ নয়। যেমন দরজা বা উড়ন্ত বস্তু ( জালনার কাঁচ, ফুল দানি, বুক শেলফ, আয়না, টেবিল লাইট ইত্যাদি হাল্কা আসবাবপত্র )

২। ভূমিকম্প যাতে আপনাকে ছুড়ে ফেলে দিতে না পারে তাই আগে থেকেই মাটিতে শুয়ে পরুন এবং হাত দিয়ে আপনার মাথা ঢেকে রাখুন।

৩। শক্ত সামর্থ্য আসবাব যেমন – টেবিল , অফিস ডেস্ক , খাটের তলে অবস্থান নিন এবং শক্ত করে ধরে রাখুন। যাতে উড়ন্ত বস্তু আপনার শরীরে না পরতে পারে।

৪। অপেক্ষা করুন ভূমিকম্প না থামা পর্যন্ত । ভূমিকম্প থামলে নিরাপদ স্থানে সরে আসুন।

যদি বিল্ডিং এর ভিতরে অবস্থান করার সময় নিরাপদ স্থান না থাকে

যদি বিল্ডিং এর ভিতর অবস্থান করার সময় নিরাপর স্থান না পান, তবে বিল্ডিং এর ভিতরে নিরাপদ কোন কোনায় সরে আসুন যা জালনা থেকে দূরে অবস্থিত।  মাটিতে শুয়ে পরুন এবং হাত, বালিশ, বই কিংবা ফাইল দিয়ে মাথা রক্ষা করার চেষ্টা করুন।

যদি আপনি ঘুমন্ত অবস্থায় থাকেন

অনেক সময় আমরা ঘুমানো অবস্থাতেই ভূমিকম্প হতে পারে। তখন আপনি আপনার মাথা কে বালিশ দিয়ে সুরক্ষিত করুন । তোশক বা জাজিম দিয়ে  আপনার শরীর কে ঢেকে নিতে  পারেন  উড়ন্ত বস্তুর হাত থেকে রক্ষা দিতে।

যদি আপনি বাইরে অবস্থান করেন 

যদি আপনি ভূমিকম্প অনুভূত হওয়ার সময় বাইরে থাকেন, তবে সুউচ্চ বিল্ডিং, স্ট্রীট লাইট , বিদ্যু খুটি  এগুলো থেকে দূরত্ব বজায় রাখুন। দৌড়ে খোলা মাঠ বা খোলা স্থানে পৌঁছানর চেষ্টা করুন এবং ভূমিকম্প না থামা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। অবশ্যই রাস্তা, ব্রিজ এগুলো হতে দূরে সরে আসুন।

যদি কোন যানবাহন কিংবা গাড়িতে থাকেন  

যদি আপনি গাড়ির ভিতরে চলন্ত অবস্থায় থাকেন তবে দ্রুত গাড়ি থামান এবং গাড়ির ভিতরেই অবস্থান করুন। ব্রিজ এর নিচে , গাছ এর পাশে, বিল্ডিং এর পাশে গাড়ি পার্ক করা থেকে বিরত থাকুন।

ভূমিকম্প পরবর্তী পদক্ষেপ 

ভূমিকম্প শেষ হওয়ার পর কিছু পদক্ষেপ আমরা গ্রহণ করতে পারি। যেগুলো আমাদের নিরাপদে থাকতে ও অন্যদের নিরাপদে রাখতে সাহায্য করবে । চলুন জেনে নি আমাদের কি করণীয় ভূমিকম্প শেষ হওয়ার পর।

১। ভূমিকম্প থেমে যাওয়ার পর চারপাশে তাকান , নিরাপদে এবং নিরাপদ স্থানে সরে আসুন । বিল্ডিং এর ভিতর হতে বের হয়ে খোলা স্থানে চলে আসুন।

২। যদি আপনি কোন কিছুর নিচে চাপা পরেন , তবে নরাচড়ার চেষ্টা করবেন না। কারণ এতে আপনার খত স্থানে ব্যাথা পেতে পারেন এবং এতে করে ধুলোবালি উড়ে আপনার শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যাঘাত ঘটাতে পারে।

৩। আপনার কাছে মোবাইল থাকলে কল করে অথবা টেক্সট করে সাহায্য চাইতে পারেন।

৪। থেমে থেমে কিছুক্ষণ পর পর সাহায্যের জন্যও চিকার করতে পারেন। তবে আপনার শক্তি যাতে দ্রুত ক্ষয় না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৫। যখন আপনি নিরাপদ বোধ করবেন তবে আপনার প্রতিবেশী দের খোজ নিন, লোকাল টিভি , রেডিও শুনুন  ভূমিকম্পের পরিমাপ অথবা ক্ষতি সম্পর্কে জানতে।

৬। ভূমিকম্প একবার হয়ে গেলে আবার তা পুনরায় ফিরে আসতে পারে । যা ‘aftershocks’ নামে পরিচিত। নিরাপদ স্থানে যেয়ে “Drop, Cover, and Hold on” পজিসনে থাকুন । যাতে নিরাপদ থাকতে পারেন। 

আশাকরি উপড়ের টিপস গুল আপনাদের কাজে লাগবে আপনার , আপনার প্রিয়জনের এবং আপনার প্রতিবেশীদের জীবন রক্ষার্থে ।

আপনার মন্তব্য
(Visited 1 times, 1 visits today)

About The Author

Bangladeshism Desk Bangladeshism Project is a Sister Concern of NahidRains Pictures. This website is not any Newspaper or Magazine rather its a Public Digest to share experience and views and to promote Patriotism in the heart of the people.

You might be interested in