বার বার ‘লিস্ট’ বানিয়ে বাংলাদেশকে অপমান!

18
SHARE

কদিন পর পর এক একটা নামী-বেনামী সংস্থা নানা রকমের সেরা বা কুখ্যাত লিস্ট বের করে। যেমন পৃথিবীর সেরা দেশ, সেরা শহর, সেরা আথিতিয়েতা, সেরা সুখী দেশ, সেরা দুখী দেশ, সেরা সন্ত্রাসী দেশ, সেরা মাথা খারাপ দেশ, সেরা পাগল দেশ ইত্যাদি ইত্যাদি। তাদের এই সেরা তালিকা বা রেটিং তালিকা যেন কোনদিন শেষই হয় না, আর প্রায় প্রতিটি লিস্টে থাকে বাংলাদেশের নাম – তবে একেবারে শেষের দিকে। বলতে গেলে শেষের দিক থেকে প্রথম ১০টির মধ্যেই থাকে। এভাবে করে প্রতি বছর শত শত সেরা লিস্ট বের করে নানা আন্তর্জাতিক মিডিয়াতে এগুলো প্রচার করা হয় আর বাংলাদেশের ভাবমূর্তি নস্ট হয়। অন্য দেশের কথা আমরা জানিনা তাদের কেমন লাগে, তবে আমাদের মেজাজ বিগড়ে যায়।

আমাদের মনের গহীনে একটাই প্রশ্ন বার বার উকি দেয় – এসব লিস্ট যারা তৈরী করেন, তাদের তথ্যগুলো ঠিক কতটা সঠিক? কোথা থেকে কোন পয়েন্টারের ভিত্তিতে এসব বের করা রেটিং বের করা হয়? এসবের বৈধতা কতটুকু? তারা ঠিক কোন অধিকারে এসব রেটিং তালিকা বের করে এবং কোন অধিকারে এসব তালিকার মার্কেটিং করে? অন্য আরেকটা দেশের ভাবমূর্তি নস্ট করার অধিকার তাদের কে দিয়েছে? এসব প্রশ্ন খুব ঘুরপাক খায়। খুব সহজ কিছু লজিক আছে। যেমন, আমি নিজের ইচ্ছা মত ১০ টা দোকানের তালিকা বের করলাম আর রাস্তাঘাটে ২/৪ মানুষের কাছ থেকে জিজ্ঞেস করলাম এই দোকান কেমন, ঐ দোকান কেমন। এরপর একটা লিস্ট বের করে বললাম ১নম্বর দোকান খুব ভাল এবং ১০ নম্বর দোকান খুব খারাপ। এরপর আমি সেই লিস্ট বাজারজাত করলাম। ১ নম্বর দোকানি খুব খুশী হলো আর ১০ নম্বর দোকানীর ব্যবসা লাঠে উঠল। সেই দোকানী আমার নামে মানহানী মামলা করে দিল। কারন এটাই স্বাভাবিক। আমার কোন অধিকার নেই তার দোকানকে খারাপ বলার যদি না আইন না বলে। মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে, কিন্তু তাই বলে ডিফেইমিং করার অধিকার কারো নেই।

এবার আসি আরেকটা লজিকে। আপনি আমেরিকায় গিয়ে যদি জিজ্ঞেস করেন পৃথিবীর সেরা দেশ কোনটা, তাহলে তারা জবাব দিবে – আমেরিকা। আপনি দিল্লীতে গিয়ে জিজ্ঞেস করেন পৃথিবীর সেরা শহর কোনটা, দিল্লির মানুষ জবাব দিবে – দিল্লী। মানুষের ভোটেই তো এসব পরিসংখ্যান করা হয় তাই না? কই, এসব পরিসংখানের কাগজপত্র বা ভোটাভুটির কোন কিছু তো কোনদিন সামনে আসল না! কেউ তো কোনদিন এসব পরিসংখ্যানে সাধারন মানুষদের অংশগ্রহন করতে বলল না! তো ঠিক কাদের তথ্যে এসব র‍্যাংকিং ফিক্স করা হয়? নিশ্চয় ইউরোপের মানুষকে জিজ্ঞেস করা হয় ঢাকা কেমন শহর? তাই না? অথবা ঢাকায় যদি জিজ্ঞেস করা হয় পৃথিবীর সেরা শহর কোনটি, তাহলে জবাব কি লন্ডন আসবে? মোটেই না, জবাব আসবে ঢাকা বা বাংলাদেশের কোন শহর। এটাই স্বাভাবিক।

এভাবে লিস্ট করে করে বাংলাদেশকে অনবরত ডিফেইমিং করার এসব প্রক্রিয়া বন্ধ হবার দরকার। এসব লিস্টের কোন ভিত্তি নেই। ভিত্তি থাকলেও এগুলো গ্রহনযোগ্য না। কারন পুরো একটা দেশ বা শহরকে ডিফেইমিং করার কারো কোন অধিকার নেই। একটা দেশ বা একটা শহর বসবাসের জন্য কতটা উপযোগী সেটা সবচেয়ে ভাল বলতে পারবে সে দেশের বা সে শহরের মানুষ। ঢাকা যদি এতই বসবাসের অনুপযোগী হয়ে থাকে, তাহলে কিভাবে ঢাকায় এত মানুষ থাকে? যেভাবেই থাকুক, থাকে তো? নাকি ঢাকার মানুষকে বা বাংলাদেশের মানুষকে মানুষ মনে হয় না? আমাদের সরকারের উচিত এসব লিস্ট যারা করা সেসব সংস্থার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করা। তানা হলে এগুলো চলতেই থাকবে। থামবে না কোনদিন।

আর আমরাও ঠিক করেছি এ ব্যাপারে একটা স্টেপ নেব আপনাদের সাথে নিয়ে। বাংলাদেশীজম প্রজেক্ট দিয়ে আমরা বাংলাদেশকে দেখিয়ে আসছি অনেক বছর। এবার আরো বেশী করে দেখাবো। আর একাজে আপনারা আমাদের হেল্প করতে পারেন। আমরা একটা ক্যাম্পেইন হাতে নিয়েছি। ক্যাম্পেইনের বিস্তারিত পাবেন আমাদের নতুন পাবলিক শেয়ারিং ওয়েবসাইট ফুডবার্তা ডট কমে (FoodBarta.com) । ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রথম পোস্ট “আপনার তোলা ঢাকা শহরের ছবিগুলো দেখান” – এ গিয়ে পড়ে দেখুন আমরা কি করতে চাইছি অংশগ্রহন করুন আমাদের সাথে। দেখা হবে ময়দানে!

ভাল থাকুন।

আপনার মন্তব্য