চট্টগ্রামে গ্যাস ট্যাংক বিস্ফোরন – আপডেট

43
SHARE

গতকাল রাতে গ্যাস ট্যাং বিস্ফোরিত হয়ে চট্টগ্রামে বেশ বড় এলাকা জুড়ে অ্যামোনিয়া গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। তীব্র গন্ধে অনেক এলাকা ভারী হয়ে উঠে। বিশেষ করে আনোয়ারা, পতেঙ্গা, হালিশহর এসব এলাকায় একটু বেশী ছড়িয়ে পড়ে। লোকজন অনেকটা আতঙ্কিত হয়।

তবে এই বায়ু দূষন এখন সহনীয় পর্যায়ে চলে এসেছে। মোটামুটি সব কিছু নিয়ন্ত্রন করা গেছে। প্রায় ২০০ টনের মত তরল অ্যামোনিয়া গ্যাস নিঃসরিত হয় এই বিস্ফোরনে। মোট ৫২ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তার মধ্যে ৯জন সুস্থ হয়ে ফিরে গেছেন।

কেন এই বিস্ফোরন ঘটেছিল স ব্যাপারে এখনও বিস্তারিত তথ্য আসেনি। কারখানাটি সমুদ্রের কাছাকাছি হওয়ায় বাতাসে এই গ্যাস খুব দ্রুত শহর এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।  বাংলাদেশ ক্যামিকেল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান বলেন, গ্যাস বিস্ফোরন নিছক একটি দুর্ঘটনা। তিনি সবাইকে গুজবে কান না দেয়ার পরামর্শ দেন। একটি সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন বলেন যে এ ঘটনায় উক্ত এলাকার মাছের অনেক ক্ষতি হয়েছে। সে জায়গায় মাছের অনেক ঘের আছে। অনেক মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

ঠিক কত পরিমান অ্যামোনিয়া বের হয়েছে এ নিয়ে একটু ধোঁয়াশা আছে। কারখানার একজন শিফট ইনচার্জ বলেছিলেন প্রথমে সেখানে ৫০০ টন অ্যামোনিয়া ছিল। তবে পরে চেয়ারম্যান দাবী করেন সেখানে ২৫০টন গ্যাস ছিল।

তবে এখন বাতাস আর আগের মত তেমন একটা ভারী মনে হচ্ছে না, দুর্গন্দও পাওয়া যাচ্ছে না। পরিস্থিতি এখন অনেকটাই স্বাভাবিক।

আপনার মন্তব্য