যৌন বিকারগ্রস্তদের ফেসবুক গ্রুপের শুধুমাত্র গত কয়েকদিনের কার্যকলাপ – ভয়ংকর নৈতিক অবক্ষয় – ভয়ংকর সব অপরাধ!
September 28, 2016
Bangladeshism Desk (768 articles)
Share

যৌন বিকারগ্রস্তদের ফেসবুক গ্রুপের শুধুমাত্র গত কয়েকদিনের কার্যকলাপ – ভয়ংকর নৈতিক অবক্ষয় – ভয়ংকর সব অপরাধ!

অনেকেই আমাদের জিজ্ঞেস করেছেন আমরা কেন কতিপয় পর্ণগ্রাফি এবং মানসিক বিকারগ্রস্তদের ফেসবুক গ্রুপ বন্ধ করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছি। অনেকেই আবার আমাদের প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন। আবার অনেকেই এসব অপরাধীদের সাপোর্টে নানা কথা বলেছেন আর আমাদের ইনবক্স এবং কমেন্টে এসব ভয়াবহ সাইবার অপরাধীদের পক্ষ নিয়ে কথা বলে গেছেন একের পর এক। তাদের বেশীরভাগই ছিল বিকারগ্রস্তদের মতই মন্তব্য।

আমরা যা করছি এগুলো একদিনের বিষয় ছিল না। অনেকদিন ধরে অনেক মানুষের কাছ থেকে আমরা রিকোয়েস্ট পেয়েছি এসব গ্রুপ বন্ধ করার জন্য কিছু করতে। যাই হোক, সেসবে না যায়। Desperately Seekin Uncesored (DSU) এর মত গ্রুপ গুলো দেশের একটা প্রজন্মকে নষ্ট করে দিচ্ছে। তাদের নোইতিক এবং চারিত্রিক অবক্ষয় তো হচ্ছেই, সেই সাথে তারা নিজেরাই সব ভইয়ংকর অপরাধী হবার পথে।

কি হয় এসব গ্রুপে জানেন কি?

হতে পারে আপনার বোনের কোন একটা ছবি অজান্তে তুলে অথবা ফেসবুক একাউন্ট থেকে চুরি করে সেসব ছবিকে বিকৃত করে যৌন বিকারগ্রস্ত ছেলেমেয়েরা নানা ধরনের অশ্লীল পোস্ট করে এবং শেয়ার করতে থাকে নিজেদের মধ্যে।

নিজেরাই পর্নো বানিয়ে বা কোন মেয়ের ধর্ষনের দৃশ্য এরা ভিডিও করে এসব গ্রুপে পোস্ট করে আর এডমিন এবং মেম্বারদের মধ্যে শেয়ার হয়। এসব করার জন্য এসব গ্রুপের নিজসব একটা ওয়েবসাইট আছে যেখানে এগুলোর কেনা বেচা চলে।

আপনার বাচ্চামেয়ের ছবি যদি এরা ফেসবুকে পায়, তাহলে তাকেও ছাড় দিবেনা। তার ছবি নিয়েও তারা মারাত্মক অশ্লীল সব পোস্ট করবে এবং মেম্বাররা মিলে অদ্ভুত এক বিকারতায় যোগ দিবে।

এসব গ্রুপের এডমিনের ছত্রছায়ায় এরা এমনকি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছবিকেও মারাত্মক অশ্লীল পর্যায়ে বিকৃত করে এগুলো দিয়ে পোস্ট তৈরী করে ছড়ায় যা দেশীয় সাইবার আইনে একটি ভয়ংকর অপরাধ।

পুরো একটা জেনারেশনকে এসব গ্রুপ অথবা পেজ নষ্ট করে দিচ্ছে অনায়াসেই। এসব মানসিক বিকারগ্রস্তদের গ্রুপগুলোর এডমিন বা মেম্বারদের এসব অপরাধ করার গর্বও রয়েছে প্রচুর। আমরা খুব বেশী কথা বলব না, তবে কিছু উদাহরন দেখাবো নীচে। এগুলো কিছু স্ক্রিনশট যেগুলো আমরা ইমেইলে পেয়েছি। এসবই হয় এসব গ্রুপ গুলোর ভেতরে এবং তার ওয়েবসাইটে। আমরা যা শেয়ার করছি, তা হলো নামেমাত্র। এর চাইতেও ভালগার যেগুলো আছে সেগুলো আমাদের ওয়েবসাইটে শেয়ার করারও অযোগ্য। নিজেরাই বিচার করুন আর ভেবে দেখুন এসব গ্রুপের এডমিন এবনেক্টিভ মেম্বারদের আসলেই বিচার হওয়া উচিত কি না। এসব গ্রুপের বন্ধ করা উচিত কিনা। আর যদি আপনাদের মনে হয় যে না, তারা যা করছে ভাল করছে, তাহলে এক কাজ করতে পারেন, নিজেদের মা-বোন এবং ছেলেমেয়েদের এসব গ্রুপের মেম্বার বানিয়ে রাখতে পারেন, এমনকি বাচ্চাদেরও – যাতে করে বড় হয়ে তারা এসব বিকারগ্ররস্তদের গ্রুপের এলিট মেম্বার হতে পারে। তখন তারাও অপরাধী, ধর্ষক আর ইভ-টিজার হবার জন্য গর্ববোধ করবে।

ছবিগুলো দেখুন আর সিদ্ধান্ত নিন। মনে রাখবেন, এগুলো শুধু ১ দিন বা বেশী হলে ২ দিনের কিছু পোস্ট থেকে বেছে বেছে একটু কম ভালগার গুলো নেয়া। বেশীরভাগ স্ক্রিনশট যেগুলো আমাদের কাছে এসেছে, সেগুলো শেয়ার করার অযোগ্য।

 

 

 

 

 

 

আপনার মন্তব্য