পাকিস্তান যাচ্ছেন না প্রধানমন্ত্রী – বাংলাদেশীজম স্যালুট !

42
SHARE

এ বছর নভেমব্রের ৮ তারিখে শুরু হওয়া সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে যাচ্ছেন না বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। এ সিদ্ধান্ত নতুন। কিছুদিন আগেও যাওয়ার একটা প্রস্তুতি ছিল কিন্তু এখন আর যাচ্ছেন না। পাকিস্তান বার বার বাংলাদেশের অভ্যন্তরীন বিষয়ে নাক গলানোর স্পর্ধা দেখিয়ে এসেছে। এমন কি রাজাকার মীর কাসেমের ফাসির পরেও তাদের বিবৃতি আর নির্লজ্জ দুঃখ প্রকাশ চোখে পড়ার মত। যুদ্ধাপরাধের ইস্যুতে পাকিস্তান বার বার বাংলাদেশের ভেতরকার ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করেছে। বাংলাদেশ প্রতিবারই পাকিস্তানকে কড়া জবাব দেয়ার পরও পাকিস্তানের কোন হুশ হয়নি। বরং দিন দিন তারা আরও নির্লজ্জ হয়ে চলেছে।

প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত অবশ্যই স্যালুট পাবার যোগ্য। তাই উনার জন্য একটা বাংলাদেশীজম স্যালুট। পাকিস্তানকে আমাদের সবরকমভাবেই বর্জন করা উচিত। সকল প্রকার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করা উচিত এবং বাংলাদেশে অবস্থানরত পাকিস্তানীদের তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা উচিত। পাকিস্তান সবসময় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কোন না কোন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকবে। কথায়বলে “কুকুরের লেজ কখনও সোজা হয়না”। এ প্রবাদটি পাকিস্তানের জন্য শতকরা ১০০ ভাগ সত্যি। পাকিস্তান আজীবন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নানা অপকর্ম করে যাবেই এবং সেসব অপকর্মের জন্য তাদের কোন অনুশোচনা থাকবে না। যেমনটা ৭১ এর জন্য তারা আজও বাংলাদেশের কাছে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চায়নি তেমনি ৭১ এর যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে তাদের নাক গলানো – তাদের উপরে উল্লিখিত প্রবাদের সত্য হবার প্রমান ছাড়া আর কিছু না।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত সময়পোযোগী। এটার খুব প্রয়োজন ছিল। পাকিস্তানকে এর চাইতেও আরো বেশী কড়া জবাব দিতে হবে ভবিষ্যতে।

কিন্তু যত যাই হোক, প্রধানমন্ত্রীকে একটি “বাংলাদেশীজম” স্যালুট তাঁর সিদ্ধান্তের জন্য। আশা করি এই সিদ্ধান্ত বদলাবে না।

আপনার মন্তব্য