ভারতীয়রা শুধু ঘেউ ঘেউ করতে জানে


সোহেল হাবিব

ভারতের সাথে চীনের বৈরিতা নতুন নয়। বরং বেশ পুরনো। এই বৈরিতার কারণে দুই দেশের মধ্যে কয়েক দফায় যুদ্ধ পর্যন্ত হয়েছে। অরুনাচলসহ ভারতীয় বিভিন্ন সীমান্তে প্রায় সময়ই হানা দেয় চীনা সৈন্যরা। তাই এই দুই দেশের কর্তাব্যাক্তিদের মধ্যে যেমন একটা লাগালাগি ভাব সব সময়ই দেখা যায়, তেমনি জনগণের কথা-বার্তাতেও তা ফুটে উঠে। যা সবচেয়ে বেশি দৃশ্যমান থাকে আবার দুই দেশের গণমাধ্যমে।

সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে চীনা বৈদ্যুতিক পণ্য বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে। আর সেটাকেই কটাক্ষ করে আক্রমণ করেছে চীনা গণমাধ্যম। ভারতে যখন চীনা বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম বয়কটের ডাক উঠেছে, তখন কড়া ভাষায় তার সমালোচনা করে চীনা সংবাদমাধ্যম লিখেছে, ভারত শুধু ঘেউ ঘেউ করতে জানে।তাই তারা যত-যাই করুক না কেন, চীনা সরঞ্জামের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় এঁটে উঠতে পারবে না ভারত৷

পাকিস্তানকে কেন্দ্র করে ভারতচীন কূটনৈতিক সম্পর্কের যে অবনতি তারই প্রভাব পড়েছে ভারতীয় চীনা বাজারে৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় চিনা বাজি আলোক সরঞ্জাম বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে৷ এমনকী রাজ্য স্তরেও চিনা সরঞ্জাম রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে পুলিশ৷ এই প্রচারের ফলে চিনা বাজারে বেশ খানিকটা প্রভাবও পড়েছে৷

জাতীয়তাবোধের হাওয়ায় ভারতীয় চিনা জিনিস কিনতে রাজি হবেন কি না তা নিয়ে আতঙ্কিত খুচরো বিক্রেতারা৷ ফলে চিনা সরঞ্জামের চাহিদা কমেছে অন্তত ২০ শতাংশ৷ কিন্তু তা মানতে নারাজ চিনা সংবাদমাধ্যম৷ পাল্টা আক্রমণ করে নিচ ভাষায় বলা হয়েছে, ভারত গর্জায় কিন্তু বর্ষায় না৷ কেননা চিনা সরঞ্জামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পারবে না ভারত৷

নানা কারণও দর্শানো হয়েছে এই মন্তব্যের পক্ষে৷ তার মধ্যে যেমন ভারতীয় কারখানায় পরিকাঠামোর অভাবের কথা তোলা হয়েছে, তেমনই সরকারি স্তরে দুর্নীতির অভিযোগের প্রসঙ্গও আনা হয়েছে৷ এমনকী ভারতীয় শ্রমিকরা কঠোর পরিশ্রমী নয় বলেও দাবি করা হয়েছে চিনা গণমাধ্যমে৷
ভারতের সঙ্গে মার্কিন সম্পর্ক নিয়েও কটাক্ষ করা হয়েছে চিনা মিডিয়ায়৷

চিনা মিডিয়া এটাও জানিয়েছে যে, আমেরিকা কারও বন্ধু হতে পারে না৷ চিনের প্রতিপত্তিতে ঈর্ষাণ্বিত আমেরিকা৷ আর তাই ভারতের আবেগকে তারা কাজে লাগাচ্ছে মাত্র৷ ভারত সেই ফাঁদেই পা দিচ্ছে৷ আর তাই চিনা মিডিয়ার বক্তব্য, ভারত শুধু ঘেউ ঘেউ করতে পারে৷ আদতে কাজের কাজ কিছু করে উঠতে পারবে না৷

ভারত সম্পর্কে চিনাদের বক্তব্য তো পাওয়া গেল, এখন দেখা যাক ভারতীয় গণমাধ্যম কি জবাব দেয়।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা –YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য
Previous একজন দিপাই যথেষ্ঠ
Next বদলে যাবে বাংলাদেশ