স্টোকস শিক্ষাটা পেলেন কার কাছ থেকে?


Bangladesh's Shakib Al Hasan (R) celebrates taking the wicket of England's Zafar Ansari during the third day of the second Test cricket match Bangladesh and England at the Sher-e-Bangla National Cricket Stadium in Dhaka on October 30, 2016. Bangladesh won the match by 108 runs and leveled the two-match Test series 1-1. / AFP PHOTO / Dibyangshu SARKAR

সোহেল হাবিব 

এবার বাংলাদেশে সফরে আসা ইংলিশ টিমে সব চেয়ে বাজে আচরণের জন্য আলোচিত নামটি স্টোকসের। সেই স্টোকসই কিনা মিরপুর টেস্ট ম্যাচ শেষে ফেইসবুকে বাংলাদেশকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি মজা করেই স্যালুট জানালো  সাকিবকে

স্টোকস তার টাইমলাইনে লিখেছেন, আমাদেরকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য ধন্যবাদ বাংলাদেশ। টেস্ট ওয়ানডে সিরিজ ছিল অসাধারণ। এদেশের মানুষ, নিরাপত্তকর্মী অতি অবশ্যই সাকিব আল হাসানকে স্যালুট!”

আমার ধারণা, স্টোকসের এই বিনয় বা ভদ্রতা কিছুটা অস্বাভাবিকই বলতে হবে। কেননা পুরো সফরজুড়েই তার ধৃষ্টতা ছিল আলোচনা-সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। এমনকি শেষ দিনও সে মাঠে সাব্বির রহমানের সাথে বাজে আচরণ করেছে।

আর তার সে রাফ বিহ্যাভ আম্পায়ার থামাতে না পেরে ইংলিশ ক্যাপ্টেন কুকের সাহায্য চাইতে বাধ্য হয়েছিলেন। কিন্তু কুকও তাকে তাৎক্ষণিকভাবে নিভৃত করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। আর সে কারণেই খেলা শেষে তার দেওয়া বিনয়পূর্ণ স্ট্যাটাস দেখে কিছুটা অবাকই হয়েছি। একই সাথে মনে একটি প্রশ্নও ঘুরপাক খাচ্ছে, স্টোকস আসলে এই শিক্ষাটা কার কাছ থেকে পেলেন?

মিরপুর টেস্টের শেষ দিন অসাধারণ এক ডেলিভারিতে বেন স্টোকসকে বোল্ড করেছিলেন সাকিব আল হাসান। উদযাপনে প্রথমে ছুটে গেলেন খানিকটা। এরপরই দাঁড়িয়ে পড়লেন উইকেটের পাশে। এক হাত কোমরে, আরেক হাতে ঠুকে দিলেন স্যালুট! যে ছবিটা শুধু সামাজিক সাইট নয় বরং মেইন স্ট্রিমের গণমাধ্যমেও ভাইরাল হয়ে গেছে।

সাকিব আল হাসানের এই স্যালুটই কি স্টোকসের মনে কোনো রেখাপাত করল?

নাকি ব্যাট করতে গিয়ে বাংলাদেশের নবীন তুর্কি মিরাজের জুতার ফিতা খুলে যাওয়ায় তা নিজ হাতে বেঁধে দিয়ে ইংলিশ ক্যাপ্টেন অ্যালিস্টার কুক যে অসাধারণ দৃশ্যের অবতারণা করেছিলেন সেই দৃশ্যটাই বেন স্টোকসের মাথায় ঢুকেছে?

নাকি মিরপুর টেস্টের তৃতীয় দিনে সেই সাব্বির রহমানের সঙ্গে ঝগড়া করার কারণে শাস্তি হিসেবে ম্যাচ ফি ১৫ শতাংশ কর্তন করায় স্টোকসের পা মাটিতে নেমেছে?

ঘটনা যাইহোক, আমাদের প্রত্যাশা থাকবে এই শেষ বিনয়টুকুই যেন স্টোকসের বাকি জীবনের সঙ্গী হয়। কেননা, এতদিন তিনি যা করে এসেছেন তা আর যেখানেই চলুক না কেন, ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেটে চলতে পারে না। এখানে অ্যালিস্টার কুকের দৃষ্টান্ত কিংবা সাকিবের স্যালুটই আদর্শ। আশা করি, স্টোকস সেটা মনে রাখবেন।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য
Previous কর্ণফুলীকে কি আমরা এভাবেই মেরে ফেলব?
Next ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যা ঘটল তা ....