ফিদেল কাস্ট্রোকে নিয়ে বিবিসির নোংরামি
November 26, 2016
Bangladeshism Desk (767 articles)
Share

ফিদেল কাস্ট্রোকে নিয়ে বিবিসির নোংরামি

আশরাফুল আলম

কিউবার অবিসংবাদিত নেতা ফিদেল কাস্ট্রো ২৬ নভেম্বর শনিবার ৯০ বছর বয়সে মৃত্যু বরণ করেছেন। তিনি কিউবার শনিবার স্থানীয় সময় রাত ৮টা ১৯ মিনিটে পরপারের যাত্রা শুরু করেন। কিউবা বিপ্লবের পরে ৫০ বছর এক নাগাড়ে শাসন করেছেন ফিদেল কাস্ট্রো। এরপর নিজের ভাই রাউল ক্যাস্ট্রোকে ক্ষমতায় বসান ২০০৮ সালে। তাপর থেকে প্রায় অন্তরালেই ছিলেন।

সমাজন্ত্র যখন খোদ রাশিয়াতেই মার খেয়েছিল, তখনও ঘোর শত্রু আমেরিকার আঙিনায় সমাজতন্ত্রের পতাকাটি যিনি উচ্চে তুলে ধরে রেখেছিলেন সেই তিনি হলে ফিদেল কাস্ট্রো। ফলে সারা বিশ্বের দৃষ্টিই তার প্রতি ছিল। বিশেষ করে সাম্রজ্যবাদের বিরোধী এবং সমাজতন্ত্রের প্রতি অনুরক্তদের কাছে তো এক অপরাজেয় বীর এই কাস্ট্রো।

তাই ফিদেল কাস্ট্রোর মতো কোনো বিপ্লবীর মৃত্যুর খবর কোনো সাধারণ ঘটনা নয়। সে কারণেই আন্তর্জাতিক সকল গণমাধ্যমই বিশেষ গুরুত্বসহকারে কাস্ট্রোর জীবন ও কর্মের বিস্তারিত বিবরণসহ তাঁর মৃত্যুর খবর প্রকাশ করেছে। কিন্তু সবার চোখে তিনি তো আর হিরো ছিলেন না। তাই কেউ কেউ দিয়েছে তাঁর অর্জনগুলোর বিস্তারিত বিবরণ, অন্যদিকে কেউ কেউ দিয়েছে ফিদেল কাস্ট্রোর জীবনের নেতিবাচক ঘটনাগুলোর বিস্তারিত বিবরণ।

নেতিবাচক খবর তারাই দিচ্ছে, যারা মূলত সাম্রজ্যবাদীদের অর্থ-বিত্ত দ্বারা পরিচালিত। বিবিসি, সিএনএন তেমনটাই করছে। এর মধ্যে সম্ভবত সবচেয়ে বেশি নোংরামি করেছে বিবিসি বাংলা। তাদের একটি সংবাদের শিরোনাম ছিল, ‘ধনী কৃষকের অবৈধ সন্তান ছিলেন ফিদেল কাস্ত্রো’। একজন মৃত মানুষকে নিয়ে এভাবে সংবাদ পরিবেশন করা কতটা গ্রহণযোগ্য হয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠাটা স্বাভাবিক। সেটা উঠেছেও। সম্ভবত সে কারণেই বিবিসি বাংলা শেষ পর্যন্ত তাদের সংবাদের শিরোনাম পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছে।

সে যাইহোক, বিষয়টি অনেক সংবাদকর্মীকেও পীড়িত করেছে। আর সে কারণেই তারা তাদের টাইমলাইনে প্রতিবাদ জানিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। প্রথম আলোর একজন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক তার টাইমলাইনে লিখেছেন, ‘বিবিসি যে কতোটা সাম্প্রদায়িক কতোটা নোংরা মানসিকতার সেটা এই হেডলাইন দেখলেই বোঝা যায়। ঘৃনা বিবিসির জন্য। নীতিকথা বলা বিবিসি কতোটা নীতিহীন বোঝা গেলো। আর বিবিসি বাংলা আরেকধাপ এগিয়ে এসব ক্ষেত্রে।’

অপর একজন তার টাইমলাইনে লিখেছেন, ‘বাঁশের চেয়ে কঞ্চি বড়। সূর্যের চেয়ে বালির উত্তাপ বেশি। বিবিসি মেইন সাইট ওবিচ্যুয়ারিতে বিষয়টা এক জায়গায় উল্লেখ করে বলেছে: ফিদেল কাস্ত্রো তার বাবা কাস্ত্রোর ‘ইলেজিটিমেট’ পুত্র হিসেবে জন্ম নেন। পরে তার মাকে বিয়ে করেন তার বাবা।বিবিসি বাংলা অবশ্য এতোই উচ্চমার্গীয় যে বিষয়টা শিরোনাম করে টপ নিউজও করেছে।

ফিদেল কাস্ত্রো যে বিবিসি-সিএনএনের পছন্দের চরিত্র না সেটা স্বাভাবিক। কিন্তু, মূল সার্ভিসে তারাও সভ্যতা-ভব্যতা দেখাচ্ছে। সিএনএন যে মায়ামি থেকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইভ করছে সেখানেও কিন্তু নির্বাসিত কিউবানরা বলছেন, তারা ফিদেলের মৃত্যুতে উৎসব করছেন না। বর্তমান পরিস্থিতিতে কিউবার নতুন ‘স্বাধীনতা’র সূর্য উঁকি দিচ্ছে বলে তারা উৎসব করছেন। বারবারই তারা বলছেন, তাদের উৎসব মৃত্যুতে নয়, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে।
বিবিসি বাংলার উৎসবটা মনে হয় ওদের চেয়ে অনেক বেশি।’

Latest Video Release

বাংলাদেশের টাইগারদের উৎসর্গ করে বাংলাদেশীজম প্রজেক্ট তৈরী করেছে একটি বিশেষ ভিডিও। নীচে ভিডিওটি দিয়ে দিলাম। দেখে ফেলুন।

আপনার মন্তব্য