বিপাকে পড়ে কাঁদছেন মোদি
November 14, 2016
Bangladeshism Desk (767 articles)
Share

বিপাকে পড়ে কাঁদছেন মোদি

কলকাতার আনন্দবাজার ‘বিস্তর নাটক, অল্প ছাড়’ শিরোনাম দিয়ে লিখেছে, ‘কেঁদেই ফেললেন প্রধানমন্ত্রী!’

জাপান থেকে হাসিমুখে হুঁশিয়ারি দিয়ে নরেন্দ্র মোদি বুঝিয়েছিলেন, নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে পিছু হটবেন না। তার পর রাহুল গান্ধী টুইটারে বলেছিলেন, ‘‘গরিব ত্রস্ত, মোদী মস্ত! মোদী হাসছেন, গরিব কাঁদছেন!’’ তার কয়েক ঘণ্টা পরে দেশে ফিরে গোয়ায় এক সভায় দাঁড়িয়ে কেঁদে ফেললেন নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদি নিজেই! যার পরে মোদির কান্নার ভিডিও টুইটারে পোস্ট করে রাহুল লিখলেন, ‘‘হাসির পর চোখের জল!’’

ঘটনা হলো, সম্প্রতি জাপান সফরে যাওয়ার আগে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি দেশের কালো টাকার মালিকদে শায়েস্তা করতে এক অভিনব সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। তিনি এক ঘোষণায় ধুম করেই ৫০০ এবং ১০০০ রুপির নোট বাতিল করে দেন।

এই নোট বাতিলের ফলে কালো টাকার মালিকদের একটা অংশ যে বিপাকে পড়েছেন, এতে কোনো সন্দেহ নেই; কিন্তু আছে আরও। সাধারণ মানুষ যারা অল্প-বিস্তর টাকা ঘরে জমিয়ে রাখেন নানা বিপদ-আপদে খরচ করার জন্য তারাও এখন বিপাকে পড়েছেন। তাছাড়া বিশাল আয়তনের দেশ ভারতে এখন এমন অনেক জায়গা আছে যেখানে কোনো ব্যাংকের শাখা নেই যেখান থেকে আশপাশে বসবাসকারীরা তাদের কাছে থাকা ৫০০০ বা ১০০০ রুপির নোট বদলে নিতে পারেন।

কিংবা দুর্গম অঞ্চলে এমন কিছু দরিদ্র মানুষ আছেন যারা দূরের কোনো ব্যাংকে যেতে-আসতে যে খরচ পড়বে তা মিটিয়ে নোট বদলানোর কোনো মানে খুঁজে পাচ্ছেন না।

শুধু দরিদ্ররাই সমস্যায় পড়েছেন, তাই নয়। অনেক বিত্তশালী কিংবা তারকাদের নিয়েও খবর বেরিয়েছে যে নোট অচল হয়ে যাওয়ায় তাদের ধার করে চলতে হচ্ছে।

ফলে সারা ভারতেই এটা নিয়ে তোলপাড় চলছে। ফলে নোট বদলানোর ব্যাপারে এবং ব্যাংক থেকে টাকা উঠানোর ব্যাপারে কিছু শর্ত নমনীয় করেছেন মোদি।

শুরুতে হুঙ্কার দিয়েও কিছুটা পিছু হটতে হয়েছে মোদিকে। মনে হয় তিনি কিছুটা ভয়ও পাচ্ছেন। গোয়ায় কান্না জড়িত আবেগঘন এক বক্তৃতায় মোদি বললেন, ‘‘আমি জানি, কোন শক্তির সঙ্গে আমি লড়াই শুরু করেছি। জানি, কারা আমার বিরুদ্ধে। ওঁদের ৭০ বছরের জমা কালো টাকা লুঠ করছি। আমাকে বাঁচতে দেবে না। বরবাদ করে দেবে।’’

অন্যদিকে মোদির এই নাটুকে মেজাজ দেখে তার দল বিজেপি নেতারা বলছেন, নোট বাতিলের সিদ্ধান্তটি একান্তই প্রধানমন্ত্রীর নিজের। মোদি নিজেও বলেছেন, গোটা বিষয়টি গোপন রেখে নেওয়া সিদ্ধান্ত তাঁর একারই। ফলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির দায়ও পুরোদস্তুর তাঁর একারই।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য