যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের তিনটি যোগ্যতা
November 7, 2016
Bangladeshism Desk (767 articles)
Share

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের তিনটি যোগ্যতা

ইমরান সুমন 

সাধারণত চার দিয়ে বিভাজ্য বছরগুলোর নভেম্বর মাসের প্রথম মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী দিনটি নির্দিষ্ট। প্রথা অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামীকাল নভেম্বর। প্রশ্ন উঠতে পারে তাহলে এবার নভেম্বর মাসের প্রথম মঙ্গলবার তো ছিল ১লা নভেম্বর, তাহলে সেদিন কেনা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলো না। এর কারণ হলো, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের আর্টিকেল এর দ্বাদশ সংশোধনী অনুযায়ী দেশটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রথা অনুযায়ী প্রতি চার বছর শেষে নভেম্বর মাসের প্রথম সোমবারের পরবর্তী মঙ্গলবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়

এর অর্থ হচ্ছে মঙ্গলবারের আগে সোমবারও থাকতে হবে। আর সেকারণেই ১লা নভেম্বর নির্বাচন না হয়ে হচ্ছে ৮ নভেম্বর।

যাইহোক, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিতে প্রার্থীকে অবশ্যই ৩টি শর্ত পূরণ তথা যোগ্যতা থাকতে হয়। প্রথমত, যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হতে হবে। দ্বিতীয়ত, ৩৫ বছর বয়সী এবং তৃতীয়ত, অন্তত ১৪ বছর যুক্তরাষ্ট্রে বাস করতে হবেএসব যোগ্যতা থাকলে যে কেউ তার প্রার্থীতা ঘোষণা করতে পারবেন। কিন্তু এখানেই শেষ নয়, তাকে প্রেসিডেন্ট পদে মূল লড়াইয়ের আগে দলীয় ফোরামের মেন্ডেট নিতে হবে।

আর সে কারণে যুক্তরাষ্ট্রে ৫০টি অঙ্গরাজ্যে দীর্ঘ এক মাসব্যাপী দলীয় কর্মীদের ভোটের মাধ্যমে নির্বাচনে প্রার্থী নির্ধারণ করা হয়। সবগুলো অঙ্গরাজ্যের ভোট নেওয়ার পর আগ্রহী প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোট এবং যোগ্যতা-সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য আইওয়া রাজ্যে রাজনৈতিক নেতাদের সমিতিতে নির্বাচন সম্পর্কিত আলোচনা করা হয়। সর্বোচ্চ সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতেই সেখানে নির্ধারণ করা হয় দলের পক্ষ থেকে কাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে।

দলীয় ফোরামে মনোনয়ন পাওয়ার পর শুরু হয় মূল লড়াই। বেশ কয়েকটি দল থাকলেও যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় ডেমোক্র্যাট এবং রিপাবলিকান দলের প্রার্থীর মধ্যে। প্রার্থীরা তাদের পক্ষে সর্বোতভাবে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যান। পাশাপাশি উভয় দলের প্রার্থীকে ৩ পর্বের প্রেসিডেন্ট বিতর্কে অংশ নিয়ে নিজ নিজ পরিকল্পনা তথা আমেরিকার নাগরিকদের জন্য তাদের যেসব পরিকল্পনা রয়েছে তার যৌক্তিকতা এবং প্রতিপক্ষের পরিকল্পনার দুর্বলতাগুলো প্রমাণের চেষ্টা করতে হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে এই পর্বের প্রেসিডেন্ট বির্তক অধিক গুরুত্বপূর্ণ। আমেরিকান ভোটাররা এ বিতর্ক দেখে বুঝে নেন যে কোন প্রার্থী তাদের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ নিয়ে কী ভাবছেন এবং কার ভাবনা কতটা যৌক্তিক। ফলে এসব বিতর্কের পরই দেখা যায় জনগণ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন আমেরিকার কমান্ডার ইন চিফ কাকে বানাবেন।

নভেম্বর মাসে প্রথম মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয় মূল ভোট। কিন্তু সেই ভোটই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের শেষ কথা নয়। কেননা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইলেকটোরাল কলেজ এবং ইলেকটোরাল ভোট নামের আরও একটি ব্যাপার রয়েছে

৫০টি অঙ্গরাজ্যের জনগণের ভোটে ৫৩৮ জন ইলেকটোরেট নির্বাচিত হন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রত্যেক প্রার্থী নিজের অথবা তার দলের পছন্দ অনুযায়ী ইলেকটর মনোনয়ন দিতে পারেনমূলত ভোটাররা ইলেকটর নির্বাচনের জন্য ভোট দেন। আর ইলেকটরেটরা নির্বাচিত করেন প্রেসিডেন্টকে।  আর প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে একজন প্রার্থীকে কমপক্ষে ২৭০টি ইলেকটোরাল ভোট নিশ্চিত করতে হয়

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য