১৩৪ দিনের অন্ধকার
November 14, 2016
Bangladeshism Desk (767 articles)
Share

১৩৪ দিনের অন্ধকার

বাংলাদেশের জন্য একেবারেই অপরিচিত এবং অপ্রত্যাশিত এক ঘটনা ঘটেছিল গত ১ জুলাই রাতে। এর আগে আমরা এসব লোমহর্ষক ঘটনা ঘটতে দেখেছি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে। এমন কি পাশের দেশ ভারতেও ঘটেছে ভয়ঙ্কর এসব ঘটনা, ঘটেছে পাকিস্তানেও। কিন্তু তাই বলে আমাদের এই বাংলাদেশেও এমনই ঘটতে দেখব, সেটা কেউ ধারণা করতে পারিনি। কেননা, যেসব দেশে ভয়ঙ্কর জঙ্গি হামলাগুলো এর আগে ঘটেছে সেসব দেশের প্রেক্ষাপট আর আমাদের দেশের প্রেক্ষাপট একেবারেই আলাদা।

দুঃখজনক হলেও এটা সত্যি যে, তারপরও সেটা ঘটেছে। গত ১ জুলাই রাতে হঠাৎ করেই খবর আসে গুলশানের একটি রেস্টুরেন্টে জঙ্গিরা প্রবেশ করেছে এবং সেখানে বিদেশিসহ বেশ কিছু মানুষকে জিম্মি করেছে তারা। তারপরের ঘটনা তো সবারই জানা।

জঙ্গি হামলার পর পুলিশ সিলাগালা করে দিয়েছিল গুলশানের ৭৯ নম্বর সড়কে অবস্থিত হলি আর্টিজান বেকারি। এরপর পেরিয়ে গেছে ১৩৪ দিন। আর এই ১৩৪ দিনের অন্ধকার পেরিয়ে আবারো রাতের আলো জ্বালানোর অনুমোতি পেয়েছে রেস্টুরেন্টটির কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, এতদিন দিনের বেলা তদন্তের কাজে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা এই রেস্টুরেন্টে গেলেও রাতে কারও প্রবেশাধিকার ছিল না। পাশের লেকভিউ ক্লিনিকে যাতায়াত করেছেন অল্প কয়েকজন কর্মকর্তাকর্মচারী। রোগী ছিল না বললেই চলে। হলি আর্টিজান   লেকভিউ ক্লিনিকে ঢোকার একটিই গেট। ওই গেটেরর বাইরে পাহারায় ছিল পুলিশ। সেই হলি আর্টিজানে আলো জ্বলেছে রবিবার (১৩ নভেম্বর) আদালতের নির্দেশে হলি আর্টিজানের কর্ণধারের কাছে রেস্টুরেন্টের নিয়ন্ত্রণ বুঝিয়ে দেওয়ার পর সেখানে চলছে ধোয়ামোছার কাজ। তবে নতুন করে সেখানে রেস্তোরাঁ চালু করা হবে না বলে জানিয়েছেন কর্ণধার সাদাত মেহেদী। তিনি জানান, সেখানে তারা আবার বসবাস করবেন

গত জুলাই রাত পৌনে ৯টার দিকে হলি আর্টিজান বেকারি এবাংকিচেনে হামলা চালায় জঙ্গিরা। জঙ্গিদের হাতে ওইদিন নিহত হন দেশিবিদেশি ২০ নাগরিক। অপারেশন চালাতে গিয়ে জঙ্গিদের ছোড়া গ্রেনেডে নিহত হন পুলিশের দুই কর্মকর্তা। টানা প্রায় ১১ ঘণ্টা জঙ্গিদের নিয়ন্ত্রণে ছিল হলি আর্টিজান। জিম্মি করে রাখা হয়েছিল হোটেলের কর্মচারীসহ রেস্তোরাঁয় আগতদের। পরদিন সকালেঅপারেশন থান্ডারবোল্টে  মাধ্যমে রুদ্ধশ্বাস এই জিম্মি ঘটনার অবসান হয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা হলি আর্টিজান থেকে ৩২ জনকে উদ্ধার করেন। কমান্ডো অভিযানে নিহত হয় জঙ্গিসহ ছয় জন

বিষয়টি শুধু হলি আর্টিজান বেকারির সমস্যা ছিল না বরং, জঙ্গি আতঙ্ক আমাদের এক জাতীয় সমস্যা হয়েও দাঁড়িয়ে ছিল। তবে সেই দুঃসময় এখন কেটে গেছে, দেশের নানা প্রান্তে লুকিযে থাকা জঙ্গিরা একে একে ধরা পড়েছে। বলতে গেলে তাদের শিকড়টাই উপড়ে ফেলেছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চৌকস সদস্যরা। তাই ১৩৪ দিনের অন্ধকার পেরিয়ে হলি আর্টিজানে আলো জ্বলার মধ্য দিয়ে কেটে যাক, জঙ্গি-সন্ত্রাসের ভয়ও- সেটাই এখন প্রত্যাশা।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য