প্রকৃতির আজব খেয়ালে নারী থেকে পুরুষ হলেন আদরী

37
SHARE

ইমরান সুমন : এক সপ্তাহে আগে পরিচয় ছিলো আদরী বেগম, এখন জোবায়েদ আহমেদ আকাশ। ঘটা করে আকিকার আয়োজনও করা হয়। নিমন্ত্রণ জানানো হয় স্বজন, প্রতিবেশী এবং গ্রামবাসীদের। আদরীর পরিবারের আর্থিক অবস্থা বিবেচনা করে এই আয়োজনে অংশ নেন পুরো গ্রামবাসী।

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার চোপীনগর ইউনিয়নের বৃ-কুষ্টিয়া ফকিরপাড়া গ্রামে ঘটেছে এমন আজব ঘটনা। ‘এক সপ্তাহের ব্যবধানে ১৯ বছর বয়সী আদরী পুরুষ হয়ে গেছে’ -এ খবর প্রচার হলে উৎসুক মানুষের ঢল নামে দিনমজুর উল্লাস ফকিরের বাড়িতে। প্রতিদিন হাজার মানুষ তাকে দেখতে ভিড় করছেন।

আজব এই প্রকৃতি যে কত খেয়ালি , কত কিছুই যে আশ্চর্য ঘটে আমাদের চেনা জানা পৃথিবীতে তার ইয়ত্তা নেই । কখনো নারী থেকে পুরুষ কখনো আবার পুরুষ থেকে নারী হওয়ার খবর পাওয়া যায়। কিন্তু কেন ঘটে এসব?

কিছু দিন আগে প্রকৃতির এ বিচিত্র খেয়ালে এক সন্তানের জনক রনি, রূপান্তরিত হয়েছিলেন রহিমায়। তার বাড়িও ছিল বগুড়া। বুলু মেকারের ছেলে ছিলেন রনি মিয়া। বগুড়ার সদর উপজেলার নিশিন্দারা ইউনিয়নের দশটিকা উত্তরপাড়া গ্রামে তার বাড়ি। সে ২০ বছর বয়সে ঢাকায় মারুফা নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেন। সংসার জীবন চলতে থাকে ঢাকাতেই। ঘর আলো করে জন্ম নেয় মিম নামের এক কন্যা সন্তান। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভালোই চলছিল তাদের সংসার। কিন্তু দ্বিতীয় সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে স্ত্রী মারুফা মারা যান । এরপর দ্বিতীয় বিয়ে করেন রনি। তবে বিভিন্ন সমস্যার কারনে দ্বিতীয় স্ত্রীর সাথে সম্পর্ক শেষ হয়ে যায় রনির । এরপর থেকেই ।

রনির পারিবারিক সুত্র বলছে, মুলত রনির শারীরিক পরিবর্তন বাড়তে থাকে ডিভোর্সের পর থেকেই, এক সন্তানের জনক রনি ধীরে ধীরে পুরুষ থেকে নারীতে রূপান্তরিত হতে থাকেন। এক সময়ে সে নারীতে রূপান্তরিত হলে রনি নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় রহিমা আক্তার।
ফরিদুল নামে রনির এক বন্ধু জানিয়েছিলেন, ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হরমোন বিশেষজ্ঞ ডা. এম হাসনাতের অধীনে রনিকে চিকিৎসাও নিতে হয়েছিল।

এবার আদরী বেগম রূপান্তরিত হয়ে পুরুষ হওয়ার পর উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার ও পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ মোতারাব হোসেন সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, হরমোনজনিত পরিবর্তনের কারণে শরীরিক কাঠামোতে পরিবর্তন আসতে পারে। আদরীর সম্পর্কে পরীক্ষা-নীরিক্ষা ছাড়া কিছু বলা যাবে না।

ঘটনা যাইহোক, হঠাৎ করে একজন নারী কিংবা পুরুষের দেহে কেনই-বা হরমোনজনিত এমন পরিবর্তন হয়? একে প্রকৃতির আজব খেয়াল ছাড়া আর কিই-বা বলা যায়?

আপনার মন্তব্য