আমেরিকানরাও দেখি জ্বালাও-পোড়াও শিখে গেছে

33
SHARE

আমাদের দেশ এবং প্রতিবেশী দেশ ইন্ডিয়াতে যে কোনো নির্বাচন এলেই পক্ষগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে মারামারির দৃশ্য দেখা যায়। আর নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরও এর রেশ থেকে যায় বেশ কিছু দিন। প্রতিপক্ষের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করা কিংবা আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেওয়ার ঘটনাও ঘটে। এমনকি হত্যাকাণ্ডের মতো দুর্ভাগ্যজনক ঘটনাও ঘটতে দেখা যায়।

এসব ঘটনা হয়তো আরও কোনো কোনো দেশেও ঘটতে পারে। কিন্তু আমেরিকার মতো সভ্য দেশেও নির্বাচনের ফল মানতে নারাজ পক্ষ জ্বালাও-পোড়াও করবে সেটা আগে কখনও ভাবনায় আসেনি। তবে এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারির পরাজয় নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর তিনি সেটাকে মেনে নিলেও মানতে পারছেন না তার ভক্তরা। তাই তারা নানা কায়দায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।

গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনে জয়লাভ করার পর ডেমোক্রেট পার্টির নেতাকর্মীরা তা মেনে নিতে পারছেন না। শতশত ডেমোক্রেট পার্টির কর্মীরা ক্যালিফোর্নিয়া, সানফ্রান্সিসকো সহ বিভিন্ন শহরের রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করেছেন।

এসব বিক্ষোভ থেকে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটছে। ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন নির্বাচনের রায় মেনে নিলেও তার সমর্থকদের অনেকেই তা মেনে নিতে পারছেন না। হিলারি সমর্থক ছাত্ররা ক্যালিফোর্নিয়ার কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাস্তায় নেমে এসে বিক্ষোভ করছে। ফ্রান্সিসকো শহরে বাড়িঘরের জানালা ভাংচুর, রাস্তার বিন জড়ো করে অগ্নিসংযোগ করছে তারা। তারা শ্লোগান দিচ্ছে ট্রাম্প তাদের প্রেসিডেন্ট নন।

অরেগন ইউনিভার্সিটির শতশত ছাত্র রাস্তাও নেমে এসে বিক্ষোভ করছে। সারাই সিলভা নামে এক নারী তার টুইটারে পোস্ট দিয়ে বলেছেন, সানফ্রান্সিসকোর প্রায় সবজায়গায় দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়েছে। টুইটারে ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র বলছে, ট্রাম্পের বিজয় আমরা মেনে নেব না। আমরা চুপ করে বসে থাকব না। অন্যদিকে পুলিশ তাদের শান্ত হয়ে ঘরে ফিরে যাবার অনুরোধ করছে।

এদিকে এধরনের বিক্ষোভ চলতে থাকলে তা হিলারি ক্লিনটন ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের যে কোনো প্রান্তে এমন হিংসাত্মক রাজনৈতিক সংস্কৃতি চর্চা হোক সেটা প্রত্যাশা করি না। আমেরিকানদের কাছে তো নয়-ই।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য