ভয়ানক পরিণতির দিকে এগুচ্ছে পাক-ভারত উত্তেজনা

34
SHARE

সোহেল হাবিব 

পাকিস্তান এবং ভারতের মধ্যে আজন্ম শত্রুতা নিয়ে কারো সন্দেহ নেই। তবে সেটা কখনো প্রকাশ্য কখনো বা অপ্রকাশ্য থাকে এই যা পার্থক্য। কখনো দেখা যায় উভয় দেশের মধ্যে কূটনীতিক বহিস্কার পাল্টা বহিস্কার চলছে, কখনো দেখা যায় বিবৃতি পাল্টা বিবৃতি। আর মাঝে মাঝেই উভয় দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে চলে হালকা-ভারী অস্ত্রের গুলি বিনিময়।

কয়েক দফায় উভয়ে দেশের মধ্যে সর্বাত্ম যুদ্ধও হয়েছে। সম্প্রতি কাশ্মীর সীমান্তের উরিতে ভারতীয় এক সেনা শিবিরে জঙ্গি হামলায় ১৯ ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর আবার তাদের মধ্যে সর্বাত্ম যুদ্ধ লেগে যাওয়া আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভারত সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের মাধ্যমে বেশ কিছু জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংসের দাবি করার পর সে উত্তেজনাটা একটু স্তিমিত হয়ে এসেছিল।

কিন্তু সাম্প্রতি কিছু ঘটনা দেখে মনে হচ্ছে নতুন করে পাক-ভারত সীমান্ত উত্তেজনা মাথাচার দিয়ে উঠছে। এরই মধ্যে     পাকিস্তানের সেনাপ্রধান জেনারেল রাহিল শরিফ দাবি করেছেন, ১৪ নভেম্বর পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ১১ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে বলা হয়েছে, জম্মু কাশ্মীরের আন্তর্জাতিক সীমান্তরেখা লাইন অব কন্ট্রোলে বিনা উসকানিতে ভারতীয় সেনারা গুলিবর্ষণ করে। জবাবে পাকিস্তানি সেনারা পাল্টা গুলি চালালে ১১ ভারতীয় সেনা নিহত হয়। যদিও ভারতের সেনাবাহিনী পাকিস্তানের দাবি নাকচ করে দিয়ে বলেছে, বরং ওই দিন পাকিস্তানি ৭ সেনা নিহত হয়েছে ভারতীয় বাহিনীর গোলার আঘাতে।

এ পরিস্থিতির মধ্যেই কলকাতার একটি অনলাইন জানিয়েছে যে, পাকিস্তান সেনাবাহিনী সীমান্ত এলাকায় সর্বাত্মক যুদ্ধের প্রস্তুতি স্বরূপ মহড়া চালিয়েছে। অনলাইনটি ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রস্তুতি নিয়ে কোনো কথা না বললেও এটা নিশ্চিৎ যে তারাও নিশ্চয়ই বসে বসে তামাক টানছেন না।

এসব কারণেই মনে হচ্ছে, পাক-ভারত সীমান্তে নতুন করে কিছু একটা হতে যাচ্ছে। যা বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে। যদি তেমন কিছু হয়ই তাতে ভারত-পাকিস্তান ছাড়াও প্রভাব পড়বে পুরো উপমহাদেশেই, এমনকি আমরাও তার বাইরে থাকব না। আর পারমাণবিক শক্তিধর দেশ দুটির সাথে পরাশক্তিগুলোর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের কারণে এটা বিশ্বব্যাপী ধ্বংস লীলার এক নতুন ঢেউ তুলতে পারে।

তাই উভয় দেশের সংশ্লিষ্টদের প্রতি আমাদের আহ্বান, যা কিছু করবেন অবশ্যই ভেবে চিন্তে করবেন। আর বন্দুকের ট্রিগারের দিকে তাকিয়ে না থেকে মগজটাকে ব্যবহার করতে আলোচনার টেবিলে বসুন। তাহলেই সব কিছুর সমাধান সহজ হয়ে যাবে।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

 

আপনার মন্তব্য