ট্রাম্পকে নিয়ে মুসলিম দুনিয়াকে ভাবতে হবে এখনই

31
SHARE

ইউসুফ হায়দার 
নির্বাচনের আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলমানদের সন্ত্রাসী হিসেবে আখ্যায়িত করেছিলেন। তিনি এও বলেছিলেন যে, এদেরকে পৃথিবী থেকেই বের দেবেন, মঙ্গল গ্রহে পাঠিয়ে দেবেন। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর তার ওয়েবসাইট থেকে মুসলিম বিদ্বেষী বাক্যগুলো সরিয়ে ফেলায় অনেকেই সস্থিতে ছিলেন যে, ট্রাম্প হয়তো আগে সেসব শুধু নির্বাচনে জয়লাভের কৌশল হিসেবেই বলেছেন।

কিন্তু বাস্তবতা আসলে ভিন্ন। ঝানু ব্যবসায়ী এ ট্রাম্প মনে হচ্ছে, সমঝোতার পথ মাড়াবেন না। সে কারণেই তিনি বেছে বেছে যুদ্ধবাজ এবং মুসলিম বিদ্বেষীদের দিয়েই তার ভবিষ্যত প্রশাসন সাজাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, মুসলিম এবং শরণার্থীদের ব্যাপারে তার নাকি গোপন পরিকল্পনাও রয়েছে।

এক খবরে বলা হয়েছে, মুসলিম অভিবাসী ও শরণার্থীদের ব্যাপারে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতিবাচক অবস্থানের আগেই স্পষ্ট হয়ে উঠেছিল। নির্বাচিত হওয়ার পর এরইমধ্যে এ সংক্রান্ত খসড়া প্রণয়নেও মনোযোগী হয়েছেন তিনি। এরইমধ্যে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের প্রাক্কালে মুসলিম ও শরণার্থী বিষয়ক আক্রমণাত্মক প্রস্তাবনার নথিসহ বার্তা সংস্থা এপি’র ক্যামেরায় ধরা পড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের নতুন মন্ত্রিসভার সম্ভাব্য সদস্য ক্রিস কোবাক। এতে মুসলিম দেশগুলো থেকে আসা অভিবাসীদের জন্য জাতীয় নিবন্ধীকরণ প্রক্রিয়া চালুর প্রস্তাব করা হয়েছে। একইসঙ্গে সিরীয় শরণার্থীদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার কথাও বলা হয়েছে।

ক্রিস কোবাক বর্তমানে কানসাসের সেক্রেটারি অব স্টেটের দায়িত্ব পালন করছেন। গত রবিবার তিনি নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ব্যাডমিনস্টারে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সম্ভাব্য নতুন প্রশাসন নিয়ে আলোচনা করতেই তারা সেখানে মিলিত হয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

এর মধ্যে আসলেই আশঙ্কাজনক বিষয় রয়েছে বিশ্ব মুসলিমদের জন্য। তাই এখন থেকেই সতর্ক হতে হবে, মুসলিম দুনিয়াকে। তা নাহলে ইরাক, লিবিয়া, আফগানিস্তান এবং সিরিয়ার পরিণতি ভোগ করতে হতে পারে সকলকেই।

কেননা, ট্রাম্পের প্রশাসনে যারা আসছেন তারা আগে কখনই মুসলমানদের সম্মানের চোখে দেখেননি। ক্ষমতা পেয়ে ভবিষ্যতে তারা সেটা করতে যাবেন কোন দুঃখে? আর ট্রাম্পের মতো বিতর্কিত ব্যক্তি যখন তাদের মাথার উপর আশ্রয় হয়ে থাকবেন তখন তো আর কথাই নেই।

সেকারণেই বলছি, আরব দুনিয়াসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশের শাসকরা যদি নিজেরা ঐক্যবদ্ধ না হন, তাহলে করুণ পরিণতি অপেক্ষা করছে সকলের জন্যই। তাই আসুন, নিজেদের মধ্যে বিরাজমান ভেদাবেধ নিরসন করে দ্রুতই একটি ঐক্যবদ্ধ প্লাট ফরম দাঁড় করান। তাহলেই কেবল, নিজেদের রক্ষা করতে পারবেন।

Latest Video Release

বাংলাদেশের টাইগারদের উৎসর্গ করে বাংলাদেশীজম প্রজেক্ট তৈরী করেছে একটি বিশেষ ভিডিও। নীচে ভিডিওটি দিয়ে দিলাম। দেখে ফেলুন।

আপনার মন্তব্য