বাংলাদেশিদের জন্য ছোট হয়ে আসছে দুনিয়া

50
SHARE

আশরাফুল আলম

বাংলাদেশিদের সব চেয়ে বড় শ্রমবাজার সৌদি আরবের অর্থনৈতিক অবস্থা এখন আর আগের মতো রমরমা নেই। তাই সে দেশ থেকে অনেক প্রবাসী ফেরত আসার খবর পাওয়া যাচ্ছে। তাছাড়া, নতুন করে সে দেশে বাংলাদেশিদের যাওয়ার ব্যাপারেও আশার আলো দেখা যাচ্ছে না। মাঝে মাঝে বাংলাদেশিদের জন্য সৌদি ভিসা উন্মুক্ত করার কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত হতাশই হতে হচ্ছে।

মালয়েশিয়ার ক্ষেত্রেও প্রায় একই ঘটনা ঘটছে। তারা একবার ৫ লক্ষ বাংলাদেশিকে ভিসা দেবে বলে চুক্তি করার পরও কী কারণে যেন পিছিয়ে গেছে।

Latest Video Release

বাংলাদেশের টাইগারদের উৎসর্গ করে বাংলাদেশীজম প্রজেক্ট তৈরী করেছে একটি বিশেষ ভিডিও। নীচে ভিডিওটি দিয়ে দিলাম। দেখে ফেলুন।

এর মধ্যে অভিবাসী বিদ্বেষী, বিশেষ করে মুসলিম বিদ্বেষী ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায়, সে দেশেও বাংলাদেশিদের প্রবেশ কঠিন হয়ে পড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, ট্রাম্প ইতোমধ্যে তাদের দেশ থেকে ৩০ লাখ অভিবাসীকে বের করে দেওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন। তার এই ঘোষণা কার্যকর হলে তাতে কিছু সংখ্যক বাংলাদেশিকেও আমেরিকা ছাড়তে হতে পারে।

আমেরিকা প্রবাসীদের ফেরত আশার আশঙ্কা কাটতে না কাটতেই আরেক খবর এসেছে ব্রিটেন থেকে। জানা গেছে, কুড়ি হাজার বাংলাদেশি নাগরিককে অবৈধ হিসেবে চিহ্নিত করে ফেরত পাঠাতে চায় ব্রিটেন। তবে এসব নাগরিকের বেশির ভাগকে অবৈধ হিসেবে চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া নিয়ে দ্বিমত রয়েছে বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের। মন্ত্রণালয় বিষয়টিকে জোরালভাবে ব্রিটিশ সরকারের কাছে উত্থাপন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশ কূটনৈতিক সংবাদদাতা সমিতির (ডিকাব) সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে ঢাকায় ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক বলেছেন, ব্রিটেনে প্রায় ২০ হাজার বাংলাদেশি নাগরিক অবৈধভাবে রয়েছে। তাদেরকে জোর করে নয়, বরং মানবিক পদ্ধতিতে ফেরত পাঠাতে চায় ব্রিটেন। এ জন্য বাংলাদেশ সরকারের সাথে আলোচনা চলছে।

ব্রিটেন যত মানবিক পদ্ধতিতেই ২০ হাজার বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নিক না কেন, সেটি আমাদের জন্য কিন্তু মানবিক থাকার কোনো কারণ নেই। বরং এটা আমাদের দেশ এবং দেশের অর্থনীতির জন্যও নেতিবাচক ঘটনাই হবে। তাছাড়া, রেমিট্যান্স প্রবাহেও ব্যাঘাত ঘটাবে। তাছাড়া, ব্রিটেন ২০ হাজার বাংলাদেশিকে ফেরত পাঠানোর পর নতুন কোনো বাহানায় আরও বেশি সংখ্যক বাংলাদেশিকে তারা ফেরত পাঠাতে চাইবে না, তারও তো কোনো নিশ্চয়তা নেই।

ইউরোপের আরও কয়েকটি দেশেও এখন উগ্র জাতীয়তাবাদ ও অভিবাসনবিরোধী মনোভাব চাঙ্গা হচ্ছে। তাহলে কি ক্রমেই বাংলাদেশিদের জন্য ছোট হয়ে আসছে দুনিয়া? বিষয়টি নিয়ে আমাদেরকে এখনই ভাবতে হবে। উদ্যোগ নিতে হবে নতুন নতুন ক্ষেত্র খুঁজে বের করার।

 

আপনার মন্তব্য