মানসিকতা বদল না হলে কোনো থেরাপিতেই কাজ হবে না

43
SHARE

সোহেল হাবিব

আমাদের রাজধানী ঢাকা এবং বন্দরনগরী চট্টগ্রামবাসীর নিত্যদিনের সঙ্গী যানজট। আর যানজটের কারণে প্রতিদিন প্রতিটি কর্মক্ষম মানুষের জীবন থেকে ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা সময় হারিয়ে যাচ্ছে। যা আমাদের জাতীয় উন্নয় ও অগ্রগতির পথেও একটি বড় বাধা।

তাই যানজট নিয়ন্ত্রণে বরাবরই সরকার এবং ট্রাফিক বিভাগ থেকে নেওয়া হয় বিভিন্ন পদক্ষেপ। তবে পদক্ষেপ যাইহোক না কেন, সেসব সাময়িক স্বস্থি দিলেও শেষপর্যন্ত কোনোটিকেই যেন আর কার্যকর মনে হয় না।

গত কয়েক দিন ধরে রাজধানীর বিজয় সরণি মোড়ে যানজট নিয়ন্ত্রণে দড়ি ব্যবহার করছেন ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা।

কারণ হচ্ছে, সিগন্যাল দিয়ে কোনো দিকের গাড়িগুলোকে থামতে নির্দেশ দেওয়ার পরও দেখা যায় সেদিকের গাড়ির চালকরা পড়িমরি করে গাড়ি চালিয়ে দেন। যতক্ষণ না ট্রাফিক পুলিশ তাদের গাড়ির সামনে এসে না দাঁড়াচ্ছেন ততক্ষণ যেন কেউ গাড়ি থামানোর কথা ভাবতেই চান না।

বিশেষ করে মোটরসাইকেল চালকরা তো আরও এককাঠি সরেস। তারা ট্রাফিক পুলিশকে পাশ কাটিয়েও সামনে চলে যান। কখনও কখনও ট্রাফিক পুলিশের সিগন্যাল অমান্য করেই রাস্তা পার হয়ে যান তারা।

এদের থামাতেই বিজয় সরণী মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ দড়ি থেরাপির ব্যবস্থা করেছেন।

কিন্তু ট্রাফিক পুলিশের এই দড়ি থেরাপি শেষ পর্যন্ত কতটা কাজে লাগবে তা বলতে পারছি না। কারণ, দড়ির ব্যবহার তারা এর আগেও অন্যান্য স্থানে করেছেন। ফলাফল হচ্ছে, যেখানে যতদিন দড়ি ধরে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকেন সেখানে ততদিন হয়তো চালকরা বাধ্য হয়ে কিছুটা নিয়ন্ত্রিত থাকেন। কিন্তু তারপর যেই সেই অবস্থা।

আসলে শুধু দড়ি থেরাপি কেন, অন্যকোনো থেরাপিই কাজে লাগবে না, যদি না আমাদের দেশের গাড়ি চালকরা মানসিকতা বদলাতে পারেন।

গাড়ি থামার সিগন্যাল দেওয়ার পরও কেন চালকদের ছুটতে হবে? মোড়গুলোতে বাম পাশের লেইনটি খালি রাখতে অসুবিধা কোথায়? উচ্চ আদালতের নিষেদাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও ফুটপাত দিয়ে মোটরসাইকেল চালাতে হবে কেন? যেখানে-সেখানে দাঁড়িয়ে যাত্রী উঠা-নামা বন্ধ করা কি অসম্ভব?

এসব প্রশ্নের উত্তর লুকিয়ে আছে আমাদের আইন কিংবা নিয়ম-শৃঙ্খলা না মানার মানসিকতায়। সে যায়গায় মোক্ষম ঘা পড়লেই সমস্যার অর্ধেক মিটে যাবে।

চালকদের প্রতি আহ্বান, দেশটা আপনাদেরও। একে বাসোপযোগী রাখার দায়িত্ব রয়েছে আপনাদের। আপনাদের সামান্য সচেতনতাই আমাদের প্রধান নগরীগুলোর সুনাম বিশ্বের দরবারে অনেকটাই বাড়িয়ে দিতে পারে।

Latest Video Release

বাংলাদেশের টাইগারদের উৎসর্গ করে বাংলাদেশীজম প্রজেক্ট তৈরী করেছে একটি বিশেষ ভিডিও। নীচে ভিডিওটি দিয়ে দিলাম। দেখে ফেলুন।

আপনার মন্তব্য