বাংলাদেশে নতুন আঙ্গিকে প্রযুক্তি নির্ভর লন্ড্রী সেবা – এক্সপ্রেস ওয়াশ


দেশ এগিয়ে যাচ্ছে আর সেই সাথে এগিয়ে যাচ্ছে দেশের নানা ধরনের সেবা। প্রযুক্তির বদলের সাথে সাথে বদলে যাচ্ছে অনেক কিছুই। বিদেশ থেকে প্রবাসী বাংলাদেশীরা দেশকে বেছে নিচ্ছেন তাঁদের নিত্য নতুন আইডিয়াগুলোর প্রতিফল ঘটানোর জন্য। ঠিক তেমনই একটি নতুন ধরনের আইডিয়ার ব্যবসা হঠাত করেই আমাদের নজরে এসেছে। এক্সপ্রেস ওয়াশ – একটি লন্ড্রী সেবা। নাম দেখেই বোঝা যায়। কিন্তু তাঁদের এই লন্ড্রী সেবায় তারা এনেছে প্রযুক্তির ছোয়া। একটু অন্যরকম। চট্টগ্রাম শহরে তারা শুরু করেছে তাঁদের এই ভিন্ন সেবা।

তিন তরুন উদ্যোক্তার এই ব্যাতিক্রমী সেবা চট্টগ্রাম শহরের মানুষের বেশ নজর কেড়েছে। আশরাফ, মিনহাজ এবং ফাহাদ – এই ৩ বন্ধু মিলে শুরু করেছে তাঁদের নতুন লন্ড্রী সেবা। কেন এই সেবা একটু অন্যরকম?

আগেই বলেছি, প্রযুক্তির ব্যবহার রয়েছে তাঁদের এই লন্ড্রি সার্ভিসে। প্রথমেই হলো নানা এলাকার লন্ড্রী কালেক্ট করা আর এরপর একটি বিশেষ ফ্যাক্টরীতে কাপড়্গুলো পরিস্কারের জন্য পাঠানো। তবে সনাতন পদ্ধতিতে না। এখানে ব্যবহার করা হচ্ছে অত্যাধুনিক সব মেশিন। কাপড়ের গুনগত মান যাতে নষ্ট না হয় সেজন্য আছে কঠোর কোয়ালিটি কন্ট্রোল। নগরীর মেহেদীবাগ এলাকায় এক্সপ্রেস ওয়াশের কর্পোরেট অফিস আর ফয়েসলেকে তাঁদের ১ম ফ্যাক্টরী। আরো একটি ফ্যাক্টরী খুব শীঘ্রই চালু হচ্ছে। হংকং থেকে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ওয়াশিং মেশিন এবং ড্রাইয়ার ইতিমধ্যে ইন্সটল করা হয়েছে তাঁদের ফয়েসলেকের ফ্যাক্টরীতে।

তাঁদের পুরো লন্ড্রী সেবার ব্যাপারটাই সামনে কিছুদিনের মধ্যে নিয়ন্ত্রন করা হবে একটি অ্যাপের মাধ্যমে যা আপনার স্মার্টফোনে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপটি এখনও তৈরী করা হচ্ছে। এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে জানতে পারবেন আপনার লন্ড্রীর বিল, কবে হাতে পাবেন, কবে কাপড় জমা দিয়েছেন ইত্যাদি। এমনকি ডেলিভারীর জন্য আগে থেকেই বুকিং দেয়া। আর হ্যাঁ, তাঁদের সেবা নেয়ার জন্য আপনাকে কোন লোকেশনে বা অফিসে যেতে হবে না। পুরো ব্যাপারটাই হোম ডেলিভারি। এখন থেকেই তারা হোম ডেলিভারি সেবাই দিয়ে আসছে। অর্থাৎ আপনার কাপড় সংগ্রহ করে আবার আপনাকে পৌছে দেয়া – সবই তাঁদের কাজ। ভবিষ্যতে যখন মোবাইল অ্যাপটি চালু হবে, তাঁদের এই সেবা আরো বেশী সমাদৃত হবে।

আপাতত শুধু চট্টগ্রামেই এই সেবা দেয়া হচ্ছে। খুলশী, ও আর নিজাম রেসিডেন্সিয়াল এরিয়া, নাসিরাবাদ হাউজিং, আমিরবাগ, মেহেদীবাগ, বাদশাহ মিয়া রোড, কসমোপলিটন আবাসিক এলাকা – এসব জায়গায় তাঁদের সেবা চালু আছে এবং চাইলেই এখনই তাঁদের সেবা নিতে পারেন। অতি শীঘ্রই চট্টগ্রামের অন্যান্য এলাকায় তাঁদের ফ্যাঞ্চাইজি চালু হচ্ছে।

এক্সপ্রেস ওয়াশের সেবা পেতে তাঁদের ফোন করতে পারেন এই নাম্বারগুলোতে – ০১৮৮৩০১১৯০১ – ৪  । আর তাঁদের ফেসবুক পেজ হলো – Facebook.com/ExpressWashCTG. নতুন এই তরুন উদ্যোক্তাদের সাপোর্ট করবেন মন থেকে আশা করি। এভাবেই দেশের কর্মসংস্থানও একদিন অনেক বাড়বে আর দেশ ছেড়ে বিদেশে যেতে হবে না কাউকে।

আপনার মন্তব্য
Previous সামরিক বাহিনীর নির্মম আক্রমনের শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র
Next পৃথিবীর সবচেয়ে নিঃসঙ্গ এলাকা...!!!