সামরিক বাহিনীর নির্মম আক্রমনের শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র
December 10, 2016
Bangladeshism Desk (768 articles)
Share

সামরিক বাহিনীর নির্মম আক্রমনের শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

মিয়ানমারের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের রাখাইন রাজ্যে চলতে থাকা সামরিক বাহিনীর নির্মম আক্রমনের শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সহ সর্বমোট ১৪ টি দেশ। দেশগুলোর মাঝে রয়েছে কানাডা, স্পেন, পোল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, ফ্রান্স, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, গ্রীস, বেলজিয়াম, অস্ট্রিয়া, তুরস্ক, আয়ারল্যান্ড এবং সুইডেন।

গতকাল শুক্রবার এক যৌথ বিবৃতিতে মিয়ানমারে অবস্থানরত উক্ত দেশগুলোর রাষ্ট্রদুতদের পক্ষ থেকে এই আহ্বান জানানো হয়। বিবৃতিতে আরো বলা হয় যে, রাখাইন রাজ্যে নৃশংশতার শিকার হাজার হাজার রোহিঙ্গারা কোন রকম খাদ্য ও স্বাস্থ্য সেবা ছাড়া মানবেতর জীবন যাপন করছে। এমন অবস্থায় সমস্ত রকম সামরিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়ে সাহায্য প্রদানে বাধা প্রধান না করা এবং সাহায্য সেবা বিলম্বিত না করার ব্যাপারেও উক্ত বিবৃতিতে অনুরোধ করা হয়।
জাতি সংঘের মুখপাত্র পিয়েরে পিরন তার দেয়া বিবৃতিতে জানান, এরই মাঝে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বিশ হাজার মানুষ এবং গৃহহীন মানুষের সংখ্যা ত্রিশ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ৯-ই অক্টোবরের সহিংসতার আগে এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার মানুষ ত্রান সাহয্যের আওতায় থাকলেও সহিংসতার পর তা নেমে দাড়িয়েছে বিশ হাজারে এবং বাকী এক লক্ষ ত্রিশ হাজার মানুষ থেকে যাচ্ছে ত্রান সহায়তার বাইরে। এছাড়াও তিনি খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করা মানুষগুলোর মাঝে সমস্ত সাস্থ্য সেবা বঞ্চিত সাত হাজরেরও বেশী সন্তানসম্ভবা নারীরা রয়েছেন বলে জানান।

এমতাবস্থায় ত্রান সাহায্য নিশ্চিত না করা হলে অবস্থার আরো অবনতির আশংকা রয়েছে।
মানবাধিকার কর্মীদের দেয়া তথ্য মতে জানা যায় যে, গত ৯ই অক্টোবর উত্তর রাখাইনের একটি ব্যাটালিয়ন সদর ও চারটি সীমান্ত চৌকিসহ সর্বমোট পাঁচটি পয়েন্টে একযোগে সন্ত্রাসী হামলায় নয়জন পুলিস কর্মকর্তা নিহত হন। উক্ত ঘটনার পর থেকেই মায়ানমার সরকার ঐ অঞ্চলের সবরকম সাংবাদিক, কূটনীতিক ও ত্রান কার্যক্রম নিষিদ্ধ করে দিয়ে রোহিঙ্গা গ্রামগুলোতে ধর্ষণ, অগ্নিসংযোগ এবং নিরস্ত্র বেসামরিক নাগরিকদের হত্যায় লিপ্ত হয়।

আপনার মন্তব্য