দৌড়ের উপরে আছে মায়ানমার

65
SHARE

তথাকথিত নোবেল বিজয়ী অং সান সুচির নিয়ন্ত্রনে মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর যে অত্যাচার করেছে তার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে জাতিসংঘ।  রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে মিয়ানমার সরকারের উদাসীন ভাব বড় ধরনের ক্ষতির কারণ হতে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার জেইদ রা’দ আল হুসেন।

অনেক মানুষ হত্যার পর জাতিসংঘের এই শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছে দেখে একটু হলেও ভাল লাগছে। এর আগে আমেরিকা সহ আরো অনেক শক্তিশালী দেশ মায়ানমারের রোহিঙ্গাদের এমন আচরনের প্রতি নিন্দা জানিয়েছে। জাতিসংঘের মানবাধিকার প্রধান আরো বলেছেন, ‘যেভাবে মিয়ানমারের সরকার গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগকে বানোয়াট বলে উড়িয়ে দিচ্ছে এবং সেখানে স্বাধীন পর্যবেক্ষকদের প্রবেশ করতে দিচ্ছে না, তা ঘটনার শিকার রোহিঙ্গাদের জন্য খুবই অবমাননাকর। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনানুযায়ী মিয়ানমারের সরকারের যে বাধ্যবাধকতা রয়েছে, এর মাধ্যমে সেগুলো তারা এড়িয়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের যদি লুকোনোর কিছু না থাকে, তাহলে কেন তারা সেখানে আমাদের ঢুকতে দিচ্ছে না? যেভাবে তারা আমাদের সেখানে ঢুকতে অনুমতি দিতে বার বার ব্যর্থ হচ্ছে, তাতে করে আমরা রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সবচেয়ে খারাপটাই আশঙ্কা করছি।’

এদিকে বিজিবির চোখ ফাঁকি দিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে পড়ার পর শরণার্থী ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে অনেক রোহিঙ্গা। বিরোধপূর্ণ উত্তর রাখাইনে শান্তি ফেরাতে দেশটির সরকারকে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে জমে থাকা দীর্ঘদিনের ক্ষোভ নিরসনে ব্যবস্থা নিতেও অনুরোধ জানান তিনি।

শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়ে কোন রাষ্ট্র নেতার যদি এই হাল হয়ে থাকে, তাহলে নোবেল পুরস্কারের আর কোন অর্থই থাকল না।

আপনার মন্তব্য