News
Posted By MP Comrade

বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতিসম্পন্ন “সুপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র ব্রহ্মা”


বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির অর্থাৎ সুপারসনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করেছে ভারত, যার নাম ‘ব্রহ্মা’। তারা ক্ষেপণাস্ত্রটির সফল উৎক্ষেপণও করেছে।  এদিকে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির ক্ষেপণাস্ত্র ভারতের হাতে থাকার খবরে চিন্তিত ন্যাটো বাহিনীও। প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে ভারতের দ্রুত উত্থান অশনিসংকেত হিসেবে বিবেচনা করে প্রতিবেশী দুই দেশ চীন ও পাকিস্তান। এদিকে ব্রহ্মার সফল উৎক্ষেপণ এর পর বিগত দেড় দশকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তিতে ভারতের দ্রুত উত্থান হিসেবে দেখা হচ্ছে। ব্রহ্মা’ই ভারতের প্রথম কোনো ক্ষেপণাস্ত্র, যার কার্যক্ষমতা ১০ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত বজায় থাকবে। তবে  ব্রহ্মা ক্ষেপণাস্ত্রটি তৈরি হয়েছে ভারত ও রাশিয়ার যৌথ উদ্যোগে যা দ্রুতবেগে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। দুই পরাশক্তির যৌথভাবে তৈরি ব্রহ্মা বিশ্বের সমরাস্ত্র বিশেষজ্ঞদের নজর কেড়েছে। খাড়াখাড়িভাবে উৎক্ষেপণে সক্ষম হওয়ায় এ ক্ষেপণাস্ত্র রাডার ফাঁকি দিতে সক্ষম। যদিও রাডার ব্রহ্মাকে চিহ্নিত করতে পারে কিন্তু মাঝপথে তা থামিয়ে কিংবা রুখে দেওয়া কার্যত কঠিন হবে। ভারত তার ব্রহ্মা ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির মাধম্যে মার্কিন টমাহক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রকেও বহু পেছনে ফেলে দিয়েছে। যেখানে টমাহক ক্রুজ মিসাইলের গতিবেগ ঘণ্টায় ৮৯০ কিলোমিটার সেখানে ব্রহ্মা ক্ষেপণাস্ত্রের গতিবেগ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৭০০ কিলোমিটার। অর্থাৎ টমাহকের চেয়ে প্রায় ৪গুন বেগে লক্ষ্যবস্তুতে নিখুঁত নিশানায় আঘাত হানতে সক্ষম ব্রহ্মা। বলা চলে ভারতের ব্রহ্মা ক্ষেপণাস্ত্র যুক্তরাষ্ট্র ও চীন উভয়কেই টেক্কা দিয়ে দিয়েছে।

রাশিয়া তার নিজের সামরিক বাহিনীর জন্যও ব্রহ্মা ক্ষেপণাস্ত্রের একটি সংস্করণ তৈরি করেছে, তবে ভারতেরটির তুলনায় তার পাল্লা কম। ভারতের ব্রহ্মা সংস্করণটির আওতা বাড়িয়ে মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র হিসেবে তৈরি করা হয়েছে। ব্রহ্মার দুটি সংস্করণ ইতিমধ্যেই ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে, যার একটি ভূমি এবং অপর সংস্করণটি জাহাজ থেকে উৎক্ষেপণযোগ্য। তবে শীঘ্রই যুদ্ধবিমান ও সাবমেরিন থেকে নিক্ষেপণযোগ্য অপর দুটি সংস্করণও ভারতীয় সামরিক বাহিনীতে অন্তর্ভুক্তির অপেক্ষায়।

ভারতে ওডিশার চণ্ডীগড়ে ভারতীয় সামরিক বাহিনীর অত্যাধুনিক মিসাইল ফ্রিগেট থেকে ব্রহ্মার সফল উৎক্ষেপণ করা হয়। এটিকে এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যেন স্থল, রণতরী, সাবমেরিন ও যুদ্ধবিমান থেকে সহজেই নিক্ষেপ করা যায়।

 


View Comments
There are currently no comments.