in ,

ঘটনাগুলো অবিশ্বাস্য এবং উদ্ভট হলেও সত্য

পৃথিবীতে মাঝে মাঝে এমন কিছু অদ্ভুত ঘটনা ঘটে, যা দেখার জন্য আমরা কোনভাবেই প্রস্তুত থাকি না। কারণ পৃথিবী এমন একটি জায়গা, এখানে কখন কি ঘটতে পারে এ ব্যাপারে কেউ কিছু বুঝার সুযোগ নেই। এমন কিছু ঘটনা ঘটে যা উদঘাটনের জন্য বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা করেও উত্তর পাওয়া যায়নি। অজনা রয়েই গেছে এমন অনেক ঘটনার কারণ। কিন্তু ঘটনা গুলো সত্যি ঘটেছিল, জেনে নিব কিছু অদ্ভুদ ঘটনা,যেগুলোর পিছনের রহস্য উদঘাটন করেও কোন উত্তর পাওয়া যায় নি।
 নিউইয়র্ক এর বেলমন্ট পার্কে ১৯২৩ সালে জকি ফ্রাঙ্ক হায়েস ঘোড়াদৌড়ে মৃত অবস্থায় প্রথম স্থান দখল করেন। তিনি মাঝ মাঠে এসে প্রতিযোগিতা চলা অবস্থায় হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে যাবার কারনে মৃত্যুবরণ করেন। কিন্তু সে ঘোড়ার পিঠে স্থিরভাবে বসে থাকেন মারা যাবার পরও।শেষ লাইন অতিক্রম করার পর উনি ঘোড়ার পিঠ থেকে ঢলে পরে যান।
 আমরা জানি, দুইটি যমজ শিশু জন্মের মধ্যে কিছু সময় এর পার্থক্য থাকে।কিন্তু পৃথিবীর সব চাইতে বেশি সময় নিয়ে যে যমজ দুই সন্তান জন্ম নিয়েছে তাদের মধ্যবর্তী সময়ের পার্থক্য ৮৭ দিন।
 সবার আঙ্গুলের ছাপ যেমন একজনের সাথে আরেকজনের টা মিলানো বিরল, ঠিক তেমনি সকলের জিহ্বার ছাপও বিরল।
 পৃথিবীর সব থেকে গভীরতম পোস্টবক্স অবস্থিত জাপানের সুসামি বেয়তে। যা ১০ মিটার দীর্ঘ এবং পানির নিচে অবস্থিত।
 মহিলা ক্যাঙ্গারুদের তিনটি যোনি রয়েছে।
 আলোর গতি সব থেকে বেশি টা আমরা জানি। কিন্তু, আলোর সব থেকে কম গতি হল সেকেন্ডে ৩৮ মাইল।যা আমরা অনেক জানি না।
 দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ৬ সপ্তাহের জন্য ব্রিটিশ সাবমেরিনের উপর একটি বলগা হরিণ রেখেছিলেন এইসএমএস ত্রিশূল। যা রাশিয়ার পক্ষ থেকে একটি উপহার ছিল।
 পৃথিবীর সব থেকে একা প্রাণী হল তিমি। একটি তিমি প্রায় দুই দশক ধরে তার সঙ্গীকে ডাকলেও কোন উত্তর পায় না। কারন তাদের স্বরের অনেক বেশি ভিন্নতা থাকে।
 গিএথুরন নামের ডাচ নামক একটি গ্রামে কোন রাস্তা নেই। ওই গ্রামের বাড়িগুলো একটি আরেকটির সাথে নৌ-পথে সংযুক্ত। তারা ব্রিজ এর মাধ্যমে যাতায়াত করে।
 যে লোকটি তার গোঁফ কে বিশ্বের সব থেকে বড় গোঁফ বলে দাবি করেছিলেন, তিনি ১৫৬৭ সালে তার গোঁফে আগুন লাগার কারনে মারা যান।
 চাঁদে মূত্র ত্যাগ করা প্রথম মানুষ ছিলেন বাজ আলদ্রিন।
 ভ্লাদিমির নাবোকভ স্মাইলি আবিষ্কার করেছেন।
 ২০০৮ সালে বিজ্ঞানীরা একটি ব্যাকটেরিয়া আবিস্কার করে যা বিভিন্ন চুলের স্প্রে তে পাওয়া গেছে।
 রোমানরা তাদের দাত মল-মূত্র দিয়ে পরিস্কার করত। এতে তাদের দাত আরও বেশি সুন্দর হত।কিন্তু দয়া করে আপনি চেষ্টা করবেন না।
 এন্টার্কটিকায় একটি বরফ থেকে প্রতিনিয়তই লাল রং এর পানি ঝরছে। তাই সেই বরফকে রক্তের ঝর্না বলা হয়।
 আইফেল টাওআর এর উপরিভাগ সূর্যের আলোর কারনে প্রসারিত হয়। এটি প্রায় ৭ ইঞ্চি পর্যন্ত লম্বা হয়।
 ২০০৭ সালে কোরে টেইলর নামের এক আমেরিকান নাগরিক তার মৃত্যুর মিথ্যা নাটক সাজায়। শুধুমাত্র, এই কারনে যে তার মোবাইলের বিল পরিশোধ করতে না হয়।
এমন উদ্ভট উদ্ভট ঘটনা প্রতিনিয়ত পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় হয়ে থাকে। কিন্তু এসব রহস্যময় ঘটনার রহস্য উদঘাটন হয় না শুধু। কিছু কিছু রহস্যময় ঘটনা ঘটে, যা বিজ্ঞানীরাও উদঘাটন করতে ব্যর্থ হয় অনেক সময়। পৃথিবীটা রহস্যময়ে ঘেরা।

What do you think?

Written by Md Meheraj

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

Comments

0 comments

প্রিয় সন্দ্বীপ

৩৬৫ দিনে ৪,৫১৭ কিলোমিটার দৌড়