in

অলৌকিক ক্ষমতা !!!

আমাদের সবারই কিছু না কিছু দক্ষতা থাকে, যা আমাদের অন্যদের থেকে আলাদা করে। ছোট বেলায় আমদের সবার ইচ্ছা হত যে, যদি আমাদের কোন অলৌকিক ক্ষমতা থাকত!!! পৃথিবীতে এমন কিছু শিশু আছে যারা অসাধারন ক্ষমতা বা সুপার পাওয়ার এর অধিকারী। অজানা রহস্যের আজকে আমি জানাব এমন কয়েকটি শিশুর ব্যপারে, যাদের অসাধারন ক্ষমতা দেখে আপনি অবাক হবেন।
তাহলে চলুন জানা যাকঃ

১। নং ইয়ো উইং

মানুষ রাতের অন্ধকারে দেখতে পায়না কিন্তু পশু পাখিরা রাতের অন্ধকারে দেখতে পায়। বাস্তব জীবনেও এমন একটি শিশু রয়েছে যে ক্যাট বয় নামে পরিচিত। চায়নাতে বসবাসকারী এই বালকটি শুধু দিনের বেলায় নয়, রাতের অন্ধকারেও সে সবকিছু স্পষ্টভাবে দেখতে পায়। বালকটির চোখগুলো নীল রঙের এবং বাকী চীনের মানুষ থেকে একদম আলাদা।

২। তানিস্ক আব্রাহাম

চৌদ্দ বছর বয়সের এই ইন্দো আমেরিকান বালকটি মাত্র ১১ বছর বয়সে তার গ্রেজুইয়েশন ইউনিভার্সিটি কমপ্লেট করেছে। তার কাছে ম্যাথমেটিক্স, ফিজিক্স, জেনারেল সাইন্স এবং ফরেন লেংগুইজ এর ডিগ্রী রয়েছে। তার আই কিউ (IQ) ৯৯.৯%। মাত্র ৪ বছর বয়সে সে মেন্সার মেম্বার হয়, মেন্সা হল পৃথিবীর সবচেয়ে বুদ্ধিমান মানুষদের জন্য একটি সংস্থা। পাঁচ বছর বয়সে সে ম্যাথমেটিক্স এর কোর্স শেষ করে, এবংসাত বছর বয়সে জিওলোজি ও স্ত্রলজি কোর্স কমপ্লেট করে। নয় বছর বয়সে
সে টেড এক্স-এ (TED-x) যাওয়ার সুযোগ পায়। এগারো বছর বয়সে সে আমাদের সৌর মঙ্গলের বাহিরের দুটি নতুন গ্রহ আবিষ্কার করে।
২০১২ সালে নাসা’র কনফারেন্স এ বক্তৃতা রাখে এবং নাসার সবচেয়ে কম বয়সী স্পিকার হয়। সে বড় হয়ে ডাক্তার হতে চায়, নোবেল প্রাইজ পেতে চায় এবং আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হতে চায়।

৩। আরাত হোছেইনি

ইরানের তিন বছর বয়সের এই শিশুটি অসাধারন খমতার অধিকারী। এই শিশুটিকে স্পাইডার বয়ও বলা হয়। এই শিশুটি যে কোন খাঁরা দেয়ালে চড়তে পারে। সমস্ত রকম চিংলেস্টিক করতে পারে। উদহারন সরূপঃ প্যাথলিপ্স, ওয়ান হ্যান্ড পুস আপ, হ্যান্ড স্ট্যান্ড আরও অনেক কিছু। এই শিশুটি খুবই জনপ্রিয়, তার ইনস্টাগ্রাম এ নয় লক্ষ ছাব্বিশ হাজারের ও বেশী ফলোয়ার রয়েছে।

৪। ইয়ায়িদ

এইটা শুনে হয়ত অবাক লাগবে কিন্ত ইয়ায়িদ নামের এই পাঁচ বছরের শিশুটি পৃথিবীর সবচেয়ে কম বয়সী এয়ার পাইলট। চীনের এই বাচ্চাটি পাঁচ বছর বয়সে ৩২ মিনিট উড়োজাহাজ চালিয়ে ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করে। একজন মানুষের পাইলট হওয়ার জন্য বছরের পর বছর প্রশিক্ষনের প্রয়োজন হয়। এত কম বয়সে এই দক্ষতা সত্যিই বিস্ময়কর।

৫।

ইভান স্টইলজিকোভিক

কোইয়েশিয়া তে বসবাসকারী ১২ বছর বয়সী এই বালকটি ম্যাগনেটিক বয় নামে পরিচিত। সে তার চারপাশে জোরালো ম্যাগনেটিক তৈরি করতে পারে এবং যে কোন ধাতব জিনিসকে আকর্ষিত করতে পারে। ছোটবেলা থেকেি সে ভিবিন্ন জিনিসকে আকর্ষণ করতে শুরু করে, বলা হয় যে তার কাছে এই পাওয়ার ও আছে।

এদের মধ্যে আপনার কোন বাচ্চাটিকে বেশী ভালো লাগলো অবশয়ই জানাবেন। আগামীতে আরও মজার অজানা সব তত্ত্য জানাবো আপনাদের।

What do you think?

Written by Sharmin Boby

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

Comments

0 comments

NASA vs ISRO

স্বাদের খাবার পার্ট ২