Beautiful Bangladesh

বাংলাদেশের সবচেয়ে কম ঘনবসতি অঞ্চল হল বান্দরবান। পাহাড়, নদী, নানান জাতের পশু পাখি ও গাছ-গাছালি কি নেই এখানে। যেদিকেই তাকাবেন কেবল মনে হবে, “ ইস সারাটা জীবন যদি এখানেই কাটিয়ে দিতে পারতাম”। হয়তো তা সম্ভব না হলেও, এখানে কাটানো সময়গুলো

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অভয়ারণ্য বাংলাদেশ। আর এই প্রাকৃতির নানান রূপ একসাথে দেখতে পাবেন চট্রগ্রামের তিনটি পার্বত্য জেলায়। রাঙ্গামাটি এই তিনটি পার্বত্য জেলার একটি। আসুন আজ যেনে নেই পার্বত্য রাঙ্গামাটির পর্যটন এলাকা গুলোর সম্পর্কে। ঝুলন্ত ব্রিজঃ রাঙ্গামাটির সবচেয়ে পরিচিত এবং সবচেয়ে জনপ্রিয়

নদী, সাগর এবং পাহাড়ে ঘেরা অপরূপ প্রাকৃতিক  সৌন্দর্য সমৃদ্ধ একটি জেলা চট্রগ্রাম। বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণের এই জেলাটির এক পাশে দেশের মূল ভূখণ্ড আর এক পাশে বঙ্গোপসাগর। ছোট বড় অনেক সমুদ্র সৈকত বেষ্টিত এই চট্টগ্রাম। এখানকার প্রতিটি সমুদ্র সৈকতেরই রয়েছে কোন

অনেকেই মনে করেন আমাদের চট্রগ্রাম শহরে ঘুরে দেখার তেমন কোন জায়গা  নেই।  কথাটি ভুল! আজ আপনাদের পরিচয় করিয়ে দিব আমাদের চট্রগ্রাম নগরীর পাহাড় ঘেরা পর্যটন এলাকা গুলো সঙ্গে। আশা করি ভালোই লাগবে আপনাদের। সি আর বিঃ চট্রগ্রামের টাইগারপাস হতে ডানে

বাকরখানি বাংলাদেশে প্রচলিত খাবারগুলির মধ্যে প্রসিদ্ধ একটি নাম যা পুরান ঢাকাবাসীদের প্রাত্যহিক সকালের নাস্তা হিসাবে খুবি জনপ্রিয়। পুরান ঢাকায় বাকরখানি ‘শুখা’ নামেও পরিচিত। এখানকার অলিতে গলিতে চোখে পড়বে ছোট বড় সব বাকরখানি তৈরির দোকান। ময়দার খামির থেকে রুটি বানিয়ে তা

বাংলাদেশের দক্ষিণ – পূর্বে চট্রগ্রাম এর অবস্থান। প্রকৃতি যেন ঢেলে সাজিয়েছে পাহাড়, নদী আর সাগর ঘেরা এই নগরীকে। চট্রগ্রাম এর  দক্ষিন – পশ্চিম পুরোটা জুড়ে রয়েছে বিশাল সমুদ্র সৈকত। অবস্থান গত ভাবে কিছু কিছু সৈকত বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে  প্রকৃতি