সাবাশ বাংলাদেশ! – চলছে ব্রেইনওয়াশদের বাংলাওয়াশ !

34
SHARE

কিছুদিন আগে আমরা একটা আর্টিকেল পাবলিশ করেছিলাম – বলেছিলাম, “জঙ্গী দমনে বাংলাদেশ হতে পারে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত”। আমাদের লজিক ছিল, পশ্চিমা দেশগুলোর মত আমাদের জঙ্গীদের সাথে আমাদের কোন এজেন্ডা নাই। তাই, তাদের মত আমরা নাটক না করে এসব আইএস বা অন্যান্য জঙ্গীদের দমন করতে পারব অনায়াসে কারন আমাদের নিয়্যত ভাল। আর এখন তার ফলাফল আমরা ঠিকই দেখতে পাচ্ছি।

এই মুহুর্তে দেশে চলছে ব্রেইনওয়াশদের বাংলাওয়াশ। এসব জঙ্গীরা টের বুঝতে পারে নাই তারা কোথায় পা রেখেছে। ১৭ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশ। শান্তিপ্রিয়। মুখ ফুটে কখনও কিছু বলে না বরং মুখ বুজে সহ্য করে যায় সব। কিন্তু গায়ের উপরে বেশী জোরে এসে পড়লে জবাব দেয়ার ক্ষমতা রাখে প্রতিপক্ষ যেই হোক না কেন। গতকাল রাতে কল্যানপুরে হলো পরিচ্ছন্নতা অভিযান। এটি আমাদের সিগ্ন্যাল দিচ্ছে আমরা সঠিক পথেই আছি। সামনে সম্ভবত্ এরকম অনেক অভিযান দেখব। কারন আমেরিকা-ইউরোপ বা ইসরায়েলের মত আমাদের লুকানো কোন এজেন্ডা নেই যে নাটক করে তাদের পুষব। আমরা চাই শান্তি আর এটার জন্য যা যা করার দরকার তাই আমরা করব যেকোন মূল্যে।

সত্যিকার অর্থে যদি আমেরিকার নিয়্যত ভাল থাকত তাহলে আইএস অনেক আগেই ক্লিন হয়ে যেন। কিন্তু তাদের এত ক্ষমতা থাকা সত্তেও তারা লাঠি-তলোয়ার আর কয়েকটা একে-৪৭ নিয়ে লড়াই করা আইএস বা অন্যান্য সন্ত্রাসীদের দমন করে পারে না – ব্যাপারটা হাস্যকর! তাদের কথাবার্তা আজকাল সবই অসংলগ্ন, প্রশ্নবিদ্ধ। আমাদের দেশ গরীব দেশ, ক্ষমতাও কম কিন্তু ইচ্ছাশক্তি প্রবল। এই মুহুর্তে দেশের সব ধরনের মানুষ এক হয়ে আছে জঙ্গী ইস্যুতে। অন্তত মনে মনে হলেও। সবার একই ইচ্ছা – এদের দমন করতেই হবে। এবং সেটাই হচ্ছে।

মনে হয় না খুব বেশীদিন লাগবে পরিচ্ছন্নতা অভিযান সম্পূর্নরুপে শেষ হতে। আর একটা ব্যাপার হচ্ছে, আমাদের দেশের পুলিশ বা গোয়েন্দা বাহিনী অনেকের চাইতে এক্সপার্ট। এখানে যে পরিবেশে তারা কাজ করেন বা যে স্টাইলে, সেটি অনেক কঠিন কিন্তু নেটওয়ার্ক ভাল কারন এ দেশে মানুষ অনেক বেশী। শুধু একটু সততা থাকলে আর ইচ্ছা শক্তি থাকলে বাংলাদেশেরপুলিশ পারে না হেন কোন কাজ নেই। ইনফরমেশন তারা ঠিকই বের করে নিতে জানে। গুলশান হামলার হাসনাতের কথাই ধরেন। শেষ পর্যন্ত বেত হলো সেই হাসনাতই হলো গুলশান হামলার মাস্টারমাইন্ড।

ISIS – The Islamic State বাংলাদেশে ঢুকে এখন হয়ে গেছে ISIS – The Chicken State। আর হ্যা, বাংলাদেশে ঢুকার পথ সবসময় ওয়ান ওয়ে। এখানে ঢুকা সহজ, কিন্তু বের হওয়া অসম্ভব। আর আইএস এর কাছে সেই মেসেজ এতক্ষনে চলেও গেছে। এখানে ব্রেইনওয়াশ বা মাইন্ডওয়াশ কোন কাজে আসে না। বাংলাদেশে শুধু হয় বাংলাওয়াশ – Take it or Leave it, we don’t give a damn.

আপনার মন্তব্য