ক্রিকেট মোড়লদের যুদ্ধ ! ! ! আইসিসি-ভারত যুগলের ব্রেক-আপ!

28
SHARE

মওকা মওকা এর কথা তো খেয়াল আছে তাই না? অথবা বিশ্বকাপের সময় আইসিসির ভারতের হয়ে মাস্তানি? ওয়েল, কথায় বলে What goes around, Comes around। ভারতের পরম আত্মীয় আইসিসির সাথে এখন চলছে সম্পর্কের টানাপোড়েন। তাদের দীর্ঘিদিনের প্রেমের সম্পর্কের ইতি ঘটছে এবার। কারন আইসিসি নাকি এখন ভারতের সার্থের বিরুদ্ধে কাজ করছে! মজা না? আপনারা কতটা মজা পেলেন আমি জানিনা, তবে আমি খুব মজা পাচ্ছি বিষয়টাতে। এতদিনের মনের, আত্মার সম্পর্কের ছেদ! আহা, কি মধুর সম্পর্কই না ছিল আইসিসি আর ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে। দুটো প্রতিষ্ঠানকে তো মনে হতো এক মন, এক শরীর শুধু ভিন্ন নাম! এমনকি প্রেমের ঠেলায় আইসিসির নাম ইন্ডিয়ান ক্রিকেট বোর্ড পর্যন্ত রেখেছিল মানুষ!

গত কয়েকমাসে আইসিসির সাথে ভারতের সম্পর্কের যথেষ্ট অবনতি হয়েছে। মোড়লদের মধ্যে অর্থের ভাগাভাগি নিয়েও ভারত ক্ষুব্ধ। এতদিন তো মিলে ঝুলে খেয়েছিল। এখন আর ভাগে একটু কম পড়ছে এই যা। আগামী বছর চ্যাম্পিয়ন ট্রফি করার জন্য ইংল্যান্ডকে যে পরিমান টাকা দিচ্ছে আইসিসি তা নিয়ে বেজায় নাখোশ ভারত। তারা তো এত খেতে পারেনি আগে! বিশ্ব মোড়লের কারনে ভারতের ২২ শতাংশ লভ্যাংশ পাওয়ার কথা সেখানে ভারত পাচ্ছে ১৫ শতাংশ! এতবড় আতে ঘা! ভারত কি আর এটা মেনে নিবে?

তবে এসব মোড়লদের মাঝে বেচারা বাংলাদেশের কোন ঠাই নেই। বিশ্বকাপের সময় আমরা সবাই দেখেছিলাম এই আইসিসির নির্লজ্জ সব কান্ড। এদের ভেতরেই ক্ষমতার পালা ঘুরতে থাকবে সবসময়। অন্তত এটাই বোঝা যায়। মাঝে মাঝে মনে হয় এই আইসিসি কে নাকোচ করে নতুন করে ক্রিকেট কাউন্সিল করলে মনে হয় আরো ভাল হবে যেখানে আমন্ত্রন জানানো হবে বিশ্বের আরো অনেক দেশকে – ক্রিকেট খেলার জন্য বা খেলুড়ে হবার জন্য। অনেকটা ফুটবলের মত। ক্রিকেট বিশ্বকাপেও থাকবে ৫০-৬০টি দেশ। পুরো পৃথিবী নিয়ে হবে খেলা। শুধু মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দেশ না।

যাই হোক, মোড়লদের ব্যবসায় টান পড়েছে এখন। মনে আছে বিশ্বকাপের সময় ভারতের মওকা মওকার জবাবে আমরা একটা ভিডিও বানিয়েছিলাম যেটি ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল? সেদিন আমরা সেখানে আইসিসিকে একটা জবাব দিয়েছিলাম। ভিডিওটিও নীচে জুড়ে দিলাম। স্মৃতিচারন করতে সুবিধা হবে।

আপনার মন্তব্য