বিশ্বময় শান্তির দ্যুতি ছড়াচ্ছেন বাংলাদেশের ছেলে বিপি বড়ুয়া ! স্যালুট!

40
SHARE

বাংলাদেশকে নিয়ে গর্ব করার কি নেই? কোথায় নেই বাংলাদেশীরা? মহাকাশ গবেষনা হতে শুরু করে কৃষি ক্ষেত্রে নতুন আবিস্কার কিংবা বিশ্বের বড় প্রতিষ্ঠানের গবেষক হতে শুরু করে শান্তির বানী ছড়ানোতে অগ্রপথিক – বাংলাদেশীরা আছেন সবখানেই – সগর্বে, স্ব-মহিমায়। এবার সেই লিস্টে যুক্ত হলো শান্তির দ্যুতি ছড়ানো বাংলাদেশের ব্রাক্ষ্মন্ড প্রতাপ বড়ুয়া, সংক্ষেপে বিপি বড়ুয়া। তিনি আন্তর্জাতিক সংগঠন HWPL (The Heavenly Culture World Peace Restoration of Light) এর শান্তির দ্যুত (Peace Ambassador) হিসেবে যোগদান করেছেন কিছুদিন আগেই। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার যুবসংঘের সাধারন সম্পাদক এবং IPG, Korea এর প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর এবং সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে World Buddhist TV (WBTV) -তে সম্মানসূচক ডিরেক্টর পদে যোগদান করেছেন।

14333046_692873624202603_922204960114284785_nbp-1

চট্টগ্রামের ছেলে বিপি বড়ুয়া পড়ালেখা করেছেন ঢাকার আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে (বিবিএ এবং এমবিএ)। এরপর আমেরিকার Rushmore University পিএহচডি ডিগ্রী লাভ করেছেন অর্গানাইজেশন ডেভলপমেন্টের উপর।

bp-2

প্রচার বিমুখ এই মানুষটির ঝুলিতে আছে বেশ বড় সড় কয়েকটা আন্তর্জাতিক পদক। যেমন YMBA (NEPAL) – Award of Appreciation, WFBY (Sri Lanka) –  Ward of Appreciation, সম্মানসূচক বিশেষ পদক “Buddhist Outstanding Leadershit Award যা তিনি পেয়েছেন থাইল্যান্ডের ধর্ম মন্ত্রনালয় থেকে। এগুলোর পরেও তার ঝুলিতে আছে আমেরিকান কিছু পুরস্কার। মূলত তিনি শান্তির দ্যুত হিসেবে বিভিন্ন দেশে শান্তির বানী ছড়ান। বাংলাদেশেও তার অনেক কার্যকলাপ আছে।

bp-3

এসব ছাড়াও তিনি একজন সফল ব্যবসায়ী এবং তার প্রতিটি ব্যবসার মধ্যে দুটো জিনিষ প্রাধান্য পায় – একটি হলো শান্তির বানী ছড়ানো আর আরেকটি হলো – দ্যা গ্রীন মুভমেন্ট। অর্থাৎ বৈশ্বিক উষ্ণতা, গ্লোবাল ক্লাইম্যাট এসেসমেন্ট এগুলোর উপর তিনি প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন। এমনকি গাছ লাগানোতে মানুষকে উতসাহিত করার জন্য বাংলাদেশ সহ নানা দেশে তিনি নীরবে আড়ালে থেকে নানা ধরনের ক্যাম্পেইন করে যাচ্ছেন।

bp-6শান্তির বানী ছড়ানো ছাড়াও তার আরেকটি শখ হলো পিয়ানো। না, অ্যামেচার কোন পিয়ানো বাদক না, একেবারে প্রফেশনাল লেভেলে তিনি পিয়ানো বাজাতে পারেন। এটি তার অন্যতম শখ। সেই সাথে জড়িত আছেন অভিনয় আর বিদেশের নানা টিভি চ্যানেলের হোস্ট হিসেবে। কিছুদিনের মধ্যেই তিনি একটি বাংলাদেশী সিনেমাতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন তবে সেই ব্যাপারে বিস্তারিত তিনি বলতে রাজী হননি। শুনে খুব ভাল লাগবে, বিপি বড়ুয়া বাংলাদেশীজম প্রজেক্টেরও একজন ফ্যান। এই ব্যাপারটা জানার পর আমাদেরও খুব ভাল লেগেছিল যাএ এত বড় মানুষ হয়েও বাংলাদেশীজম প্রজেক্টের মত নিতান্তই ক্ষুদ্র একটি চেষ্টা তার চোখে পড়েছে। ব্যাপারটা অবাক করার মতই। আর সেই সূত্র ধরে তিনি বাংলাদেশীজম প্রজেক্টের বেশ কয়েকটি অনলাইন শো এবং শর্টফিল্মে হাজির হয়েছেন অথিতি হিসেবে আর তিনি আসলেই চারিদকের পরিবেশ অন্যরকম ভাবেই বদলে যায়।

BP-5.jpg

ঢাকায় নিজ এলাকায় তিনি অনেক সমাজসেবা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেন। তার মধ্যে যেটি আমার সবচাইতে মনে ধরেছে, সেটি হলো, রোজার মাসে শত শত রোজদারদের জন্য প্রতিদিন ইফতারের আয়োজন করা। তিনি নিজে বৌদ্ধ ধর্মের অনুসারী কিন্তু তার কাছে সব ধর্মই সমান এবং সব ধর্মকে তিনি সমান শ্রদ্ধা করেন। তার আরও অনেক কাজ আছে বাংলাদেশ এবং দেশের বাইরে, কিন্তু সেগুলোর কথা আমরা বলছি না কারন এই বিপি বড়ুয়া মানুষটি বড়ই প্রচারবিমুখ। অনেক কষ্ট করে তার কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছি এই আর্টীকেলটি প্রকাশ করার জন্য।

যদি বিপি বড়ুয়াকে ফেসবুকে ফলো করতে চান, তাহলে যেতে পারেন তার সদ্য খোলা ফেসবুক পেজে – লিঙ্ক – https://www.facebook.com/BPpublicfigure.bd/

আপনার মন্তব্য