চুম্বক নিয়ে মজার কিছু তথ্য

28
SHARE

ম্যাগনেট বা চুম্বক – আমরা সবাই চিনি। চুম্বক নিয়ে বেশ কিছু ব্যাপার আছে যেগুলো সাধারন জ্ঞানের মধ্যে পরে…

  • চুম্বকের কারনে যে চৌম্বকীয় শক্তি তৈরী হয় তাকে চৌম্বকীয় ক্ষেত্র বা ম্যাগনেটিক ফিল্ড বলা হয়।
  • ম্যাগনেটি ফিল্ড বা চৌম্বকীয় ক্ষেত্রকে চোখে দেখা যায়না।
  • চুম্বক শুধু গুটিকয়েক ধাতব পদার্থেই আকর্ষিত হয়। অন্যান্য রকমের পদার্থ যেমন প্লাস্টিক বা কাঠে চুম্বকের তেমন কোন ব্যবহার নেই।
  • চুম্বকের দুটি চৌম্বকীয় মেরু থাকে – উত্তর মেরু এবং দক্ষিন মেরু।
  • আমাদের পৃথিবী বিশাল এক চৌম্বকীয় ক্ষেত্র।
  • পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী দুটি চুম্বকগুলো লস এলমোস ন্যাশনাল ল্যাবরেটরী ( নিউ মেক্সিকো) এবং ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে সংরক্ষিত আছে। এদের চৌম্বকীয় শক্তির মাত্রা যথাক্রমে ১০০ এবং ৪৫ টেসলা। সাধারন ক্রেনের মধ্যে যেসব চুম্বক ব্যবহার করা হয় তা হয় ২ টেসলা – যা সহজে একটি গাড়ি লিফট করতে পারে।
  •  ধারনা করা হয় ম্যাগনেট সর্বপ্রথম আবিস্কার হয় আজ থেকে প্রায় ৪,০০০ বছর আগে আর আবিস্কার করে ম্যাগনাস নামের এক ভেড়াপালক যখন তার জুতোতে থাকা লোহার আংটা ম্যাগনেটিক পাথরের সাথে আটকে যায়। সেই পাথরের পরে নামকরন হয় ম্যাগনেটাইট।
আপনার মন্তব্য