সেতু আছে সড়ক নেই

26
SHARE

পত্রপত্রিকার পাতা উল্টালে প্রায়ই এমন কিছু খবর চোখে পড়ে; কোথাও হয়তো লেখা থাকে ‘সেতু আছে সড়ক নেই’, কোথাও লেখা থাকে ‘সংযোগ সড়ক নেই, পড়ে আছে সেতু’ কিংবা এমনই অন্যকোনো কথা।

তেমনি সম্প্রতি ‘সংযোগ সড়ক নেই, পড়ে আছে সেতু’ শিরোনামের এক খবরে দেখলাম, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার দিঘী ইউনিয়ন পরিষদের সামনে খাদের ওপর তিন মাস আগে সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হয়। তবে এখনো সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি। এতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

এর আগে ‘সেতু আছে, সড়ক নেই’ শিরোনামের অপর এক খবরে বলা হয়েছিল, রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার খেদারমারা ইউনিয়নে বারমাটিলা এলাকায় সেতুটির নির্মাণকাজ হয় চার বছর আগে। এতে ব্যয় হয় প্রায় ২৯ লাখ টাকা। কিন্তু সংযোগ সড়ক না থাকায় সেতুটি কোনো কাজে আসছে না।

‘বিয়ানীবাজারে সেতু আছে সড়ক নেইশিরোনামের অন্য একটি সংবাদে বলা হয়েছে, বিয়ানীবাজার উপজেলার মাথিউরা ইউনিয়নের পুরুষপাল গ্রামের সংযোগ সড়কের জন্য তিন বছর আগে সেতুটি নির্মাণ করা হয়উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের তত্ত্বাবধানে সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩০ লাখ টাকার বেশি বিয়ানীবাজারশিকপুর সড়কের সঙ্গে পুরুষপাল গ্রামের বিকল্প সড়কের সংযোগ স্থাপন করতে নাদাই খালের ওপর সেতু নির্মাণ করা হয় গ্রামবাসী সহজ যোগাযোগের জন্য সেতু নির্মাণ হলেও সংযোগ সড়ক না থাকায় তাদের ভোগান্তি কমেনি

অপর একটি খবরে বলা হয়, চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের লেদি খালের ওপর এমনই একটি নতুন সেতু নির্মাণ করা হয়েছে। যেখানে সেতু আছে, সড়ক নেই!  যে স্থানটিতে সেতুটি নির্মাণ করা হয়েছে, রাস্তা না থাকায় সেখানকার জনসাধারণ সেতু নির্মাণের পরও উপকার পাচ্ছে না।

অন্তর্জালে খোঁজ করলে এমন খবর আরও অনেক পাওয়া যাবে তাতে সন্দেহ নেই। লাখ লাখ টাকা খরচ করে জনগণের সুবিধার জন্য সেতু নির্মাণ করা হয়। কিন্তু সামান্য কিছু অর্থ খরচ করে সংযোগ সড়ক নির্মাণে বছরের পর বছর বিলম্বের কারণে সেই ভোগান্তি থেকেই যায়। এমন ঘটনাকে কতটা স্বাভাবিকভাবে নেয়া যায়?

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি এটা নিয়ে আন্তরিক হন তাহলে তো সেতু নির্মাণের সাথেই সংযোগ সড়ক নির্মাণের বাধ্যবাদকতাও জুড়ে দিতে পারেন। এতে না হয় নির্মাণ ব্যয় কিছুটা বাড়বে, কিন্তু যে উদ্দেশ্যে সেতু নির্মাণ হচ্ছে সেটা নিশ্চয়ই পূরণ হবে।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য