রেল লাইন থেকে দূরে থাকুন

35
SHARE

নানা কারণেই আজকাল রেল লাইনগুলো যেন মৃত্যুর ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা এক পরিসংখ্যানে জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত রেলওয়ে পুলিশের একটি থানা এলাকায় মাসে ২৩০টি লাশ উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে ১০৬ জন মারা গেছে মুঠোফোনে কথা বলতে বলতে রেললাইন পার হওয়ার সময়।

বর্তমানে মুঠোফোনে কথা বলতে বলতে রেল লাইন ধরে হাঁটতে গিয়ে অনেকের মৃত্যু ঘটছে। তাছাড়া বিভিন্ন স্থানে রেল ক্রসিং-এ লাইন ম্যান নেই। নাই কোনো গেইট। অথচ সেসব স্থান দিয়ে অহরহ মানুষ চলাচল করেন, সেসব স্থানেও দুর্ঘটনা ঘটার খবর পাওয়া যায়। রেল লাইনের পাশ ঘেঁষে অনেক বস্তি এবং কাঁচা বাজার গড়ে উঠেছে। এসবের কারণেও দুর্ঘটনা ঘটে।

তবে ভয়ানক খবর হচ্ছে, কোনো কোনো সময় সন্ত্রাসীরা মানুষকে মেরে এনে রেল লাইনে ফেলে রাখে, যাতে ট্রেনে কাটা পড়ে লাশ খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে যায়। এবং তাতে অন্যরা মনে করে এটি একটি দুর্ঘটনা ছাড়া আর কিছুই নয়। এমনকি কখনো কখনো ছিনতাইকারীরা রাতের বেলা রেলযাত্রীদের সর্বস্ব কেড়ে নিয়ে রেল থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়। মানুষ ধারণা করে হয়তো দুর্ঘটনায় পড়ে মৃত্যু হয়েছে।

রেল লাইন নিয়ে লিখতে লিখতেই খবর এলো, লালমনিরহাট পৌরসভার খোচাবাড়ি রেল লাইন থেকে বেগম (৪০) নামে স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীর খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধার করেছে জিআরপি থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে লালমনিরহাট বুড়িমারী রেল রুটের খোচাবাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

ঘটনাটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা কিংবা অসাবধানতার কারণে ঘটেছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সে যাইহোক, এমন ঘটনা নতুন নয়। প্রতিনিয়তই রেল লাইনে কাটা পড়ে মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়।

তার পরেও আমরা সতর্ক হচ্ছি না, সতর্ক হচ্ছে না কর্তৃপক্ষও। সেকারণেই সবগুলো রেল ক্রসিংয়ে গেইট কিংবা গেইটকিপারের ব্যবস্থা এখন নিশ্চিত করা হচ্ছে না।

জানা গেছে, সারাদেশে রেল নেটওয়ার্কে মোট ২৫৪১টি লেভেল ক্রসিং আছে যার মধ্যে অনুমোদিত লেভেল ক্রসিংয়ের সংখ্যা ৭৮০টি। বাকি ১৭৬১টি অনুমোদনহীন। আবার ৭৮০টি অনুমোদিত লেভেল ক্রসিংয়ের মধ্যে মাত্র ২৪২টিতে রক্ষী বা গেটকিপার আছে, বাকিগুলোতে নেই।

এই অবস্থায় চলুন আমরা নিজেরাই আগে সতর্ক হই। রেল লাইন থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকি। সেটা সম্ভব না হলে, অন্তত সতর্ক হয়ে রেল লাইন দিয়ে চলাচল করি।

রিলেভেন্ট এই বিষয়গুলোর উপর ভিডিও দেখতে চাইলে সাবস্ক্রাইব করে রাখুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি – ঠিকানা – YouTube.com/Bangladeshism

আপনার মন্তব্য